1. [email protected] : Reporter : Reporter
  2. [email protected] : MJHossain : M J Hossain
  3. [email protected] : isaac10j54517 :
  4. [email protected] : janetbaader69 :
  5. [email protected] : katherinflower :
  6. [email protected] : makaylafriday8 :
  7. [email protected] : Rakib Hasan : Rakib Hasan
  8. [email protected] : meredithbriley :
  9. [email protected] : olamcevoy1234 :
  10. [email protected] : roseannaoreily4 :
  11. [email protected] : sebastianstanfor :
  12. [email protected] : tangelamedina :
  13. [email protected] : teenaligar6 :
  14. [email protected] : xugmerri6352 :
  15. [email protected] : yzvhildegarde :
চাঁদাবাজি হত্যা ধর্ষণ সহ প্রায় ১৭ মামলার আসামি সোর্স আনোয়ার গ্রেফতার - BBC News 24

শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ১০:৫০ অপরাহ্ন

সবার দৃষ্টি আকর্ষন:
অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১: তৃতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট এর উত্তর লিখার কাজ চলছে। সর্বশেষ উপডেট পেতে সাথেই থাকুন
ব্রেকিং নিউজ :
কক্সবাজারে ৬ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা, উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাব’র নিন্দা পশ্চিম বাকলিয়া সমাজ কমিটি ও সচেতন নাগরিক সমাজের ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ দরিদ্র কৃষকের পাকা ধান কেটে ঘরে তুলে দেন শরণখোলা উপজেলা ছাত্রলীগ ৬ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে পাহাড় খেকোর মামলা, দুই বাংলা অনলাইন সাংবাদিক ফোরাম কক্সবাজার শাখ’র নিন্দা ও প্রতিবাদ ১৪ আসনে মহীয়সী নারী শিরিন রোকসানা নৌকার মাঝি হতে চান লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল এর জন্মদিন ৬ মে বিলাইছড়ি জোন কর্তৃক অবৈধ কাঠ উদ্ধার সড়ক দুর্ঘটনায় মনোতোষ নামে এক যুবকের মৃত্যু মৌলভীবাজারে কওমী মাদ্রাসা দুস্থ শিক্ষক ও ইমামদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসনের কর্মচারীেেদর মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ
চাঁদাবাজি হত্যা ধর্ষণ সহ প্রায় ১৭ মামলার আসামি সোর্স আনোয়ার গ্রেফতার

চাঁদাবাজি হত্যা ধর্ষণ সহ প্রায় ১৭ মামলার আসামি সোর্স আনোয়ার গ্রেফতার

এম এ আশরাফ উদ্দীনঃচাঁদাবাজির মামলায় গ্রেফতার হয়েছে চট্টগ্রাম নগরীর বায়েজিদ বোস্তামি থানা এলাকায় হত্যা ধর্ষণ চাঁদাবাজিসহ অন্তত দেড় ডজন মামলার আসামি সোর্স আনোয়ার। চট্টগ্রাম মহানগর সিএম কোর্টে দশ জনের নাম উল্লেখ করে একটি চাঁদাবাজি লুটপাট ডাকাতি সহ একাধিক অভিযোগ উল্লেখ করে মামলার এজাহারে উল্লেখ করে ৪ই এপ্রিল একটি মামলা দায়ের করেন ব্যবসায়ী মোঃ আলমগীর।

আনোয়ার প্রকাশ সোর্স আনোয়ার গতবছর একটি ধর্ষণ মামলায় দীর্ঘদিন কারাভোগ করেন। গত কয়েকদিন আগে জামিনে বের হয়ে আবারো আনোয়ার বাহিনীর একটি সিন্ডিকেট সন্ত্রাসী কার্যক্রম শুরু করে এলাকায় তাণ্ডব সৃষ্টি করেছে বলে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে।

ব্যবসায়ী আলমগীরের মামলায় এক নম্বর আসামি করা হয়েছে মোহাম্মদ আনোয়ার(৪৮), মোহাম্মদ বাবলু(২৮), মোঃ জাবেদ প্রকাশ ডিশ জাবেদ (৩২),জান্নাত বেগম (৪৫),আল আমিন(২৫) ফিরোজ (৩০)আবুল হোসেন(৪৫) মোঃ সাদ্দাম (৩০)রুবেল(২৭) অজ্ঞাতনামা আরও সাত-থেকে আটজন এদের মধ্যে জাবেদ প্রকাশ ডিশ জাবেদ
গ্রেপ্তার হয়েছে, বর্তমানে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন।

3rd week assignment 2021

পাহাড় কাটা, চাঁদাবাজি, দখল বাণিজ্য, মাদক ব্যবসাসহ নানা সন্ত্রাসী কাজে লিপ্ত রয়েছে আনোয়ারের একটি সিন্ডিকেট। এ সিন্ডিকেটের হাতে জিম্মি এলাকার ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষ। সিন্ডিকেটের নেতৃত্বে রয়েছে একাধিক মামলার আসামি আনোয়ার প্রকাশ সোর্স আনোয়ার, অভিযোগ রয়েছে, যে কোনো ঘর বাড়ি নির্মাণ কাজে তাদেরকে দিতে হয় মোটা অংকের চাঁদা। আনোয়ার নিজেকে স্বঘোষিত বাস্তহারা লীগের নেতা বলে দাবী করে এলাকায় সরকারি পাহাড় কেটে প্লট বানিয়ে নিম্নআয়ের মানুষের কাছে বেচাকেনা করে, শিল্প কারখানায় চাঁদাবাজি করে বিপুল অর্থের মালিক হয়ে গেছে আনোয়ার সিন্ডিকেটের সদস্যরা।

 
hostseba.com
 

সদস্যদের মধ্যে ভাগ করে দেয়া হয়েছে কে কোন এলাকায় চাঁদাবাজি, জুয়া মাদক ব্যবসা ও পাহাড় কেটে টিন দিয়ে ঘেরাও করে ফ্লট তৈরি করা।
জান্নাত বেগম প্রকাশ পুলিশের বউ। জান্নাত বেগম এর দায়িত্ব হচ্ছে ব্যাংক পাহাড় সহ আশপাশের এলাকা নিয়ন্ত্রণ করা।

ডেবার পাড় সেগুন বাগান খামারবাড়ি সহ আশপাশের এলাকা নিয়ন্ত্রণ করে অন্তত অর্ধডজন মামলার আসামি কিশোর গ্যাং লিডার বাবলু। তার নেতৃত্বে রয়েছেন বিশাল একটি কিশোর গ্যাং। বাংলাবাজার গুলশান হাউজিং সোসাইটি সহ আশপাশের এলাকা ও বাংলাবাজার সিডিএর রাস্তার উপর অবৈধ তিনশতাদিক ভাসমান দোকান, শতাধিক সবজির দোকান ও শতাধিক পেঁয়াজ ডাল সহ বিভিন্ন প্রকারের দোকান ৫০থেকে৬০ টিরও অধিক মাছের দোকান সহ তিন শতাধিক দোকান থেকে দৈনিক ১৮০ টাকা থেকে শুরু করে দুইশত টাকা দৈনিক আদায় করে জাবেদ প্রকাশ ডিশ জাবেদ। জাবেদ প্রকাশ ডিশ জাবেদ এলাকায় কিশোর গ্যাং লিডার হিসেবে এলাকায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন।

বায়েজিদ বোস্তামি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি প্রিটন সরকার বলেন, ব্যবসায়ী আলমগীর বিজ্ঞ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন, আদালত মামলাটি থানায় এজাহার হিসেবে নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন। একটি চাঁদাবাজির মামলায় আনোয়ার হোসেন প্রকাশ সোর্স আনোয়ার মামলার এজাহারের এক নম্বর আসামি গ্রেপ্তার হয়েছেন, আগামী কালকে তাকে কোর্টে প্রেরণ করা হবে। এবং স্বঘোষিত ছাত্রলীগ নেতা ইমন হত্যার এজাহারনামীয় আসামি সালাউদ্দিন বিজ্ঞ আদালত ওয়ান সিক্সটি ফোর আনোয়ার এর নাম বলেছিলেন এমন প্রশ্নের জবাবে ওসি প্রিটন সরকার বলেন আমরা যাচাই বাছাই করে দেখতেছি।

ইমন হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই ইকবাল বলেন, ইমন হত্যা মামলার এজাহারনামীয় আসামি সালাউদ্দিনের ওয়ান সিক্সটি ফোর বেশ কয়েকজনের নাম এসেছে, তার মধ্যে আনোয়ার প্রকাশ সোর্স আনোয়ারের নামটিও রয়েছে, তদন্তের স্বার্থে বলতে পারতেছি না, তবে তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে।

বায়েজিদ বোস্তামি থানার সাব ইন্সপেক্টর মোঃ এমদাদ বলেন, আলমগীর হোসেন নামে এক ব্যবসায়ী একটি মামলা দায়ের করেন, কোর্টে মামলাটি বিজ্ঞ আদালত থানায় এজাহার হিসেবে নেওয়ার জন্য আদেশ প্রদান করেন থানায় মামলাটি এজাহার নেন, অভিযান চালিয়ে শুক্রবার রাত দশটার দিকে চৌধুরী নগর পাহাড় থেকে এক নম্বর আসামি আনোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম বায়েজিদ বোস্তামী থানা পুলিশ।

এসব এলাকায় অধিকাংশ বাড়ি বহুতল ভবন নির্মাণ কাজ চলিতেছে, এখানে আলামিন ফকির আলামিন ও ইসমাইল প্রকাশ হকার ইসমাইল থেকে ইট বালু কিনতে বাধ্য হচ্ছেন বাড়ি নির্মাণ কারিরা, না হলে নেমে আসে অমানবিক নির্যাতন, রাতের বেলায় ইট বালি চুরি করে নেয় ওদের একটি সেন্টিকেট, যার কারণে অসহায় হয়ে প্রত্যেকটি ইট তিন থেকে চার টাকা করে বাড়তি দামে কিনতে হয় আলামীন ও ইসমাইল থেকে, প্রতি গাড়ি বালু ওদের থেকে কিনতে হয় পাঁচ থেকে ছয় হাজার টাকা করে বেশি দামে। এদের প্রত্যেকের রয়েছে একাধিক মামলা ও একটি সন্ত্রাসী বাহিনী, যে বাহিনীর মধ্যে দিয়ে চলে এই সব চাঁদাবাজি, খুন, ধর্ষণ চাঁদাবাজিসহ সন্ত্রাসী কার্যকলাপ।

বায়েজিদ বোস্তামি থানাধীন ক্রাইম জোন ডেবার পাড় এলাকার এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, আনোয়ার প্রকাশ সোর্স আনোয়ার ছিলেন পুলিশের সোর্স, হঠাৎ করে এলাকায় নিজেকে স্বঘোষিত বাস্তহারা লীগের নেতা দাবি করে বাংলাবাজারে ডেবার পাড় ভাসমান দোকান থেকে চাঁদা তোলা শুরু করেন, এই কারণেই এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করে হত্যা, ধর্ষণ, চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপরাধ করে যাচ্ছেন আনোয়ার। আর এ নিয়ে এলাকার সাধারণ ব্যবসায়ীরা প্রতিবাদ করলে নেমে আসে অমানবিক নির্যাতন।

পাহাড়কাটা, মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি আর জুয়ার আসরের অবৈধ অর্থে কোটি টাকার মালিক বলে জানা গেছে আনোয়ার। তাদের ভয়ে রীতিমত তটস্থ বায়েজিদ, বাংলাবাজার, ডেবার পাড়, গুলশান সোসাইটি, ব্যাংক পাহাড়, মুক্তিযোদ্ধা কলোনি, এলাকার বাসিন্দারা। আনোয়ার সেখানকার হর্তাকর্তা। দিনের আলো কিংবা রাতের আঁধারে এস্কেভেটর দিয়ে পাহাড় কাটা, সরকারি-বেসরকারি ভূমি দখল, আর জুয়ার আসর সবই চলে আনোয়ারের নির্দেশে।

আপনার মতামত দিন

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team