1. seopay01833@gmail.com : Reporter : Reporter
  2. fhbadshah95@gmail.com : MJHossain : M J Hossain
  3. g21@exnik.com : isaac10j54517 :
  4. Janet-Baader96@picklez.org : janetbaader69 :
  5. tristan@miki8.xyz : katherinflower :
  6. makaylafriday74@any.intained.com : makaylafriday8 :
  7. mdrakibhasan752@gmail.com : Rakib Hasan : Rakib Hasan
  8. g39@exnik.com : meredithbriley :
  9. muhibbbc1@gmail.com : Muhibullah Chy : Muhibullah Chy
  10. olamcevoy@baby.discopied.com : olamcevoy1234 :
  11. g2@exnik.com : roseannaoreily4 :
  12. b13@exnik.com : sebastianstanfor :
  13. g29@exnik.com : tangelamedina :
  14. g24@exnik.com : teenaligar6 :
  15. b15@exnik.com : xugmerri6352 :
  16. g16@exnik.com : yzvhildegarde :

মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:২১ পূর্বাহ্ন

সবার দৃষ্টি আকর্ষন:
বিবিসিনিউজ২৪ডটকমডটবিডি এর পেইজে লাইক করে মুহূর্তেই পেয়ে যান আমাদের সকল সংবাদ
ব্রেকিং নিউজ :
পাহাড়তলী থানা ছাত্রলীগের সাধারণ-সম্পাদক পদপ্রার্থী আকাশের নগরীর সাগরিকা মোড়ে মহিউদ্দীন চৌধুরী’র ভাস্কর্য নির্মাণের দাবী দক্ষিণ চট্টগ্রামে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে জেলা ছাত্রলীগের নানান কার্যক্রম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষে বিশেষ প্রার্থনা ৯ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা মোশাররফ হোসেন সৈকত এর নেতৃত্বে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিন জোন এর প্রধান তানিয়া ইসলাম এর নবজাতক সন্তান লাভ কোতোয়ালী থানা ছাত্রলীগ নেতা মোঃরাফসানুল হক এর সভাপতিত্বে বৃক্ষরোপন কর্মসূচির আয়োজন। কেন্দুয়ায় শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্মদিনে ছাত্রলীগ কর্মী শাফিমের ৭৪ টি বৃক্ষ রোপন প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন করলেন ৯ নং উত্তর পাহাড়তলি ওয়ার্ড যুবলীগ প্রধানমন্ত্রী জন্মদিনের বিলাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের দোয়া মাহফিল এসকান্দার মির্জার ইন্তেকাল,বিবিসিনিউজ২৪ এর শোক
সংস্কৃতি যোদ্ধা ও সঙ্গীতগুরু, নোয়াখালীর কৃতি সন্তান অধ্যাপক রমনাথ সেনের জীবনাতিহাস

সংস্কৃতি যোদ্ধা ও সঙ্গীতগুরু, নোয়াখালীর কৃতি সন্তান অধ্যাপক রমনাথ সেনের জীবনাতিহাস

Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার- বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, নোয়াখালী জেলা সংসদ এর সহ-সভাপতি, সংস্কৃতি দেশ যোদ্ধা ও সঙ্গীতগুরু অধ্যাপক রমনাথ সেন ধর্ম, স্থান, কাল ও পাত্র ভেদে কেবল নোয়াখালীর কৃতি সন্তানই নয় বরং তৎকালীন বৃহত্তর নোয়াখালীর একজন গর্ব। তিনি গত ৩ আগস্ট সোমবার সকাল সাড়ে ১০ ঘটিকায় নোয়াখালীস্থ নিজ বাসভবনে নোয়াখালীর মাটি ও মানুষকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেছেন। তাঁর জীবনাবসানের মধ্যে দিয়ে দেশ ও জাতি হারালো একজন উজ্জ্বল নক্ষত্র ও দেশপ্রেমিক মহান ব্যক্তিত্বকে। মৃতকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৭৩ বছর।

অধ্যাপক রমনাথ সেন ১৯৪৭ সালের ২২শে মে নোয়াখালী জেলার সদর উপজেলার হরিনারায়নপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। বাল্যকালে পিতা সতীন্দ্র মোহন সেনের উৎসাহে সঙ্গীত চর্চা শুরু করেন এবং নোয়াখালীর কৃতি সন্তান ওস্তাদ সত্য গোপাল নন্দী ও ওস্তাদ অতুল চন্দ্র সূত্রধরের নিকট সঙ্গীতে খন্ডকালীন শিক্ষা গ্রহন করেন। পরবর্তীতে বড় ভাই প্রমথ নাথ সেনের প্রচেষ্টায় সাংস্কৃতিক অঙ্গনে প্রবেশ করেন।

শিক্ষাজীবনে সদর উপজেলার পৌর কল্যাণ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মেট্রিক এবং চৌমুহনী এস এ কলেজ থেকে এইচ.এস.সি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফলিত গণিতে এম.এস.সি পাশের মধ্যে দিয়ে শিক্ষাজীবনের ইতি টানেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়ন কালে তৎকালিন পূর্ব-পাকিস্থান কালচারাল একাডেমির ছাত্র হিসেবে ওস্তাদ অজিত রায়ের কাছে রবীন্দ্রসঙ্গীত এবং নজরুল একাডেমির অধ্যক্ষ ওস্তাদ শেখ লুৎফর রহমান এর কাছ থেকে নজরুল সঙ্গীত চর্চায় শিক্ষা গ্রহন করেন। এরপর নোয়াখালীতে এসে কুমিল্লার প্রখ্যাত ওস্তাদ কুলেন্দু দাসের নিকট উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতে শিক্ষা গ্রহণ করেন। পাশাপাশি দেশবরণ্য প্রখ্যাত সংস্কৃতিজন ও সংগঠক, খ্যাতিমান রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী ওস্তাদ ওয়াহিদুল হক এবং ড. সানজিদা খাতুনের নিকট বিভিন্ন সময়ে রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্পর্কে মূল্যবান ও দিকনির্দেশনা মূলক উপদেশ ও সহযোগিতা গ্রহণ করতেন।

 
hostseba.com
 

তিনি ছাত্র জীবনে লেখাপড়ার পাশাপাশি নাটকসহ সঙ্গীতের পেছনে অনেক সময় ব্যয় করেছেন। চৌমুহনী কলেজে ছাত্র থাকাকালে বিমলেন্দু মজুমদারের সাথে পরিচয় হলে তিনিই প্রথম একটি গান দিয়েছিলেন সুর করে দেয়ার জন্য। এরপর লেখাপড়ার পাশাপাশি সহপাঠি কবি ফরহাদ মজহার, তারিক মোহাম্মদ ফারুক, বিখ্যাত গীতিকার কে.জি মোস্তফার গানসহ আরো অনেকের গানে সুরারোপ করেন এ গুণী সুরকার।

১৯৬৭-১৯৭০ সাল পর্যন্ত ছাত্র আন্দোলনের উত্তাল দিনগুলোতে দেশের কল্যাণে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে গণসঙ্গীত পরিবেশন করতেন। এরপর স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে স্বাধীনবাংলা বেতার কেন্দ্রে কন্ঠযোদ্ধা শিল্পী অজিত রায়, মো: আবদুল জব্বার, সমর দাস, রথীন্দ্রনাথ রায়, কাদেরী কিবরিয়াসহ অনেক সহশিল্পী মিলে মুক্তিযুদ্ধের প্রেরণা মূলক গান পরিবেশন করেন। পূর্ব পাকিস্থান টেলিভিশনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক ফোরাম থেকে প্রায়ই সঙ্গীত পরিবেশন করতেন। স্বাধীনতা পরবর্তীকালে বাংলাদেশ টেলিভিশনে ‘গীতবিতান” অনুষ্ঠানে নিয়মিত রবীন্দ্রসঙ্গীত পরিবেশন করতেন।

স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে পেশাগত জীবনে তিনি ১৯৭৩ সালে চৌমুহনী কলেজে গণিত বিষয়ে প্রভাষক পদে নিযুক্ত হন এরপর ১৯৮৯ সালে নোয়াখালী সরকারি কলেজে সরকারি বিধি মোতাবেক প্রভাষক হিসেবে আত্মীকৃত হয়ে উক্ত কলেজের যথাক্রমে সহকারী অধ্যাপক এবং সহযোগী অধ্যাপক পদে নিযুক্ত ছিলেন। পরে ২০০১ সালে ভোলা সরকারি কলেজে বিভাগীয় প্রধান হিসেবে গণিত বিভাগে কর্মরত ছিলেন। ২০০২ সালে সেনবাগ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন শেষে চাকুরী জীবন থেকে অবসর গ্রহন করেন।

পেশাগত জীবনের পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অঙ্গনে ১৯৭৩-১৯৯২ সাল পর্যন্ত চৌমুহনী গণমিলনায়তনে এবং নোয়াখালী কচিকাঁচার মেলায় সঙ্গীত শিক্ষক এবং নোয়াখালী সঙ্গীত বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করেন। নোয়াখালী জেলা শিল্পকলা একাডেমির প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সঙ্গীত প্রশিক্ষক হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন এবং শিল্পীপুলের দলনেতা হিসেবে কাজ শুরু করে উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতের প্রশিক্ষক হিসেবে সফলতার সহিত দায়িত্ব পালন করেছেন। বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, নোয়াখালী জেলা সংসদ এর প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে জীবনের শেষদিন পর্যন্ত যুক্ত থেকে দক্ষতার সহিত সহ-সভাপতির পদে দায়িত্ব পালন করে গেছেন। পাশাপাশি ১৯৮২ সাল থেকে জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ, নোয়াখালী জেলা শাখার পর্যায়ক্রমে কোষাধ্যক্ষ, সাধারণ সম্পাদক এবং সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৯২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারি ঢাকা থেকে মুক্তধারা প্রকাশিত ‘মাটির গান মানুষের গান’ গ্রন্থে অধ্যাপক এ.এ.কে.এম. ফেরদৌস এর লেখা সবকটি গানের তিনি সুরকার ও স্বলিপিকার ছিলেন। তাঁর বেশ কিছু গান স্থানীয়ভাবে বিভিন্ন সংকলনে এবং ঢাকা থেকে প্রকাশিত সঙ্গীত বিষয়ক একমাত্র পত্রিকা ‘সরগম’এ প্রকাশিত হয়েছে। নোয়াখালীর আঞ্চলিক ভাষায় বিমলেন্দু মজুমদার রচিত গীতিনৃত্য-নাট্য ‘আঁইয়েন ব্যাকে দেশ গড়ি’ ও বদিউজ্জামান বড় লস্করের লেখা ‘মেঘনা পাড়ের পাঁচালীর গান সমুহের সুর করেছিলেন তিনি। সর্বশেষ ২০১৩ সালে নোয়াখালী জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত উদীচীর সুবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠানে ‘সঙ্গীত’ বিষয়ে গুণীজন সম্মাননা হিসেবে মহান এই ব্যক্তিকে ভুষিত করা হয়েছিলো।

পারিবারিক জীবনে অধ্যাপক রমনাথ সেন দুই সন্তানের গর্বিত জনক ছিলেন। বড় ছেলে সুব্রত সেন একজন ইলেক্ট্রনিক্স এন্ড কমিউনিকেশন প্রকৌশলী এবং কন্যা সুস্মিতা সেন ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করেছেন মাত্র। স্ত্রী গৌরী সেন নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলাধীন জালাল উদ্দিন কলেজে শিক্ষকতার সাথে অদ্যবধি যুক্ত রয়েছেন।

শব্দসৈনিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা, নোয়াখালীর সংস্কৃতি চর্চার বাতিঘর, সংস্কৃতিজন, গীতিকার, সুরকার, শিল্পী, সঙ্গীতজ্ঞ ও শিক্ষাবিদ অধ্যাপক রমানাথ সেন এর বর্নাঢ্য জীবনের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনসহ তাঁর আত্মার চিরশান্তি কামনা পূর্বক তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

আপনার মতামত দিন

Tayyaba Rent Car BBC News Ads

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Comments are closed.




© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team