1. seopay01833@gmail.com : Reporter : Reporter
  2. fhbadshah95@gmail.com : MJHossain : M J Hossain
  3. g21@exnik.com : isaac10j54517 :
  4. Janet-Baader96@picklez.org : janetbaader69 :
  5. tristan@miki8.xyz : katherinflower :
  6. makaylafriday74@any.intained.com : makaylafriday8 :
  7. mdrakibhasan752@gmail.com : Rakib Hasan : Rakib Hasan
  8. g39@exnik.com : meredithbriley :
  9. muhibbbc1@gmail.com : Muhibullah Chy : Muhibullah Chy
  10. olamcevoy@baby.discopied.com : olamcevoy1234 :
  11. g2@exnik.com : roseannaoreily4 :
  12. b13@exnik.com : sebastianstanfor :
  13. g29@exnik.com : tangelamedina :
  14. g24@exnik.com : teenaligar6 :
  15. b15@exnik.com : xugmerri6352 :
  16. g16@exnik.com : yzvhildegarde :

মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ১১:৫৫ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
গণমাধ্যমের স্বাধিনতা বনাম স্বাধিনপেশায় অশনিসংকেত!

গণমাধ্যমের স্বাধিনতা বনাম স্বাধিনপেশায় অশনিসংকেত!

Advertisements

Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্কঃ জাতীর বিবেক, সমাজের স্বচ্ছ আয়নার নামই সাংবাদিক। এরা রাতদিন গাঁধার মতো খাটে, আর প্রতিদানও গাধার মতো পায় না। এরা ইয়াবা ডন, শীর্ষ সন্ত্রাস, জলদস্যু, ভূমিদস্যু, খুন-গুমের মহারাজ্যে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ত্রাসের নগরিতে স্বস্থি ফেরাতে সমাজে লুকিয়ে থাকা ভদ্রতার আড়ালে কালো ও ঘনকালো ধূর্তশিয়ালদের মুখোশ খুলে দেয়।

এরা পথ শিশুদের নিয়ে লেখে, একজন ভিক্ষুকের কথাও ভাবে, অসহায় নির্যাতীত-নীপিড়িত মানুষের কথাও তুলে ধরে। এরা মানবতার পাড়ায় বিবেকের সঞ্চার ঘটায়। এরা সমাজকে কলঙ্কমুক্ত করতে ভদ্রতার আড়ে লুকিয়ে থাকা মুখোশ গুলো খুলে দেয়। এরা জীবনের মায়া বিসর্জন দেয় সত্যের সংগ্রামে।

এরা শুধু সমাজের খারাফ গুলোই তুলে ধরেন তা নয়, বরং সমাজের আলোকিত মানুষগুলোর সচিত্র তুলে ধরেন বিবেকের পাড়ায়। এরা আপনার সুকীর্তিগুলো তুলে ধরেন, এরা আপনার সমাজের আলোকিত মানুষদেরককে জাতীর কাছে পরিচয় করিয়ে দেন, এরা আপনার অর্জনকে পবিত্র কালি দিয়ে হৃদয় নিংড়ানো আবেগে আপনার মহিমা তুলে ধরেন। ভালোর সাথে আলোর পথে দেশকে এগিয়ে নিতে এরা ছুটছে বিরামহীন। এদের একটাই উদ্যেশ্য সমাজকে আলোকিত করা, সমাজের অসংগতি তুলে ধরা, সমাজ লুটেপুটে খাওয়াদের মুখোশ তুলে ধরা।

এদের সকাল সন্ধ্যা ছুটে চলার মুল্য কে দেয়? কে বুঝে এদের জীবন সংগ্রামের গুরুত্ব? এরা কেউ সরকারে চাকুরে নয়, এদের জীবনের ঝুঁকিও নেয় না কেউ! এদের উপরওয়ালা বলতে মামা, খালু কেউ থাকেনা। তবে, এদের জন্য কিছু সাধারণ নির্যাতীত, অসহায় মানুষের হাহাকার আছে! আছে দারাজদিলের ভালোবাসা, যারা কিছুই করতে পারেনা। এরা চরম ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে। সবসময় এদের শত্রু ভাবে সমাজের কুটচরিত্রের লোকগুলো। যারা ইয়াবাডন, মাস্তান, গুন্ডা, সন্ত্রাস, ডাকাত, চাল-ডাল-গম চোর, গরীব-মেহনতি মানুষের হক্ব আত্মসাৎ করে তাদের বিরুদ্ধে লড়ে কলম দিয়ে।

আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দেয় মুখোশের আড়ালে লুকিয়ে থাকা লোকদের হালচিত্র। সমাজের ক্ষুদ্র থেকে বড়, আরো বড় কীটদের সাথে অসি বিহীন মসির জোরে লড়ে এরা। এদের নিরাপত্তার কথা কেউ কি ভেবেছে কখনো? এদেরও পরিবার, পরিজন, আদরের ফুটফুটে শিশু, গর্বধারণী জননী তো আছেই! এসবের মায়া ছেড়ে আপনার সমাজের, দেশের আয়না হয়ে ভালো-মন্দের সচিত্র তুলে ধরে। বিনা অস্ত্রে এদের যুদ্ধে লড়তে দেখেছেন?

কতোশত ক্যামরা ভেঙ্গে দিয়েছে, মাইক্রোফোন কেড়ে নিয়েছে, গুলিতে মাথার খুলি উড়িয়ে দিয়েছে, আজীবনের জন্য পঙ্গু করে দিয়েছে, স্বাভাবিক জীবনকে বসিয়ে দিয়েছে হুইল চেয়ারে। এরা ভোট কেন্দ্রে ভোট চোরদের মুখোশ তুলে ধরে, এরা সরকারী আমলাদের ঘুষের কালোহাত প্রদর্শন করে, এমপি-মন্ত্রীদের বাজেটে টেন্ডারবাজী করার সচিত্র সু-কৌশলে তুলে ধরে, এরা পাঁতি মাস্তানদের দৌরাত্ম্যের বিরোদ্ধে কলম ধরে, এরা সমাজের কালো হাতগুলো দাবিয়ে দেয়। এই কী তাদের অপরাধ?

সত্যপ্রকাশে নির্ভীক সৈনিক যাদের কোন নিরাপত্তা নেই, যারা রাতে ঘুমাতে যাবে আরামে তার নিশ্চয়তা নেই, যাদের কে দিনদুপরে উপরওয়ালার হুকুমে হত্যার পায়তারা চালায়, সন্ধ্যার আঁধারে মুখোশ পড়ে হাইজ্যাক করে সব লুটে নিবে- এদের হাতে যখন হাতকড়া পড়তে দেখি তখন বলার ভাষা থাকেনা, তখন বোবা হয়ে যাই। এরা কোটি টাকার লোপাটে নেই, টিআর কাবিকা খেয়ে মোটাতাজা হয় না। এরা সরকারী চালের আত্মসাৎ করেনা বরং এদেরকে পরিচয় করিয়ে দেয় সমাজের কাছে, জাতীর কাছে, দেশের কাছে।

রাষ্ট্রযন্ত্রের কাছে অনুরোধ- সাংবাদিক যখন বিনা অপরাধে নির্যাতীত হয়, গুলিতে খুলি উড়ে দেয়, সত্যপ্রকাশে কাল হয়ে দাঁড়ায়, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে গিয়ে, সত্যের উন্মোচন ঘটাতে গিয়ে হাতে হাতকড়া পরতে হয় তাহলে মিডিয়াকে নিষিদ্ধ করেন নতুবা মিডিয়ার স্বাধিনতা দেন।

আমরা (মিডিয়াকর্মী) সবসময় উন্মুক্ত থাকতে চাই। আয়নায় আঘাত করা থেকে বিরত থাকুন। এই আয়না সার্বজনীন, স্বাধিন। এখানে সাদা কালো, ভালো মন্দের সবকিছুই প্রদর্শিত হয়। সাংবাদিক নির্যাতন মানেই প্রমাণ করে দেশ হিরক রাজার। আমরা হিরক রাজার আয়না হতে চাইনা!!

লেখক: শিক্ষক ও সাংবাদিক
শিব্বির আহমদ রানা

আপনার মতামত দিন

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements



Advertisements
© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team