1. seopay01833@gmail.com : Reporter : Reporter
  2. fhbadshah95@gmail.com : MJHossain : M J Hossain
  3. g21@exnik.com : isaac10j54517 :
  4. Janet-Baader96@picklez.org : janetbaader69 :
  5. tristan@miki8.xyz : katherinflower :
  6. makaylafriday74@any.intained.com : makaylafriday8 :
  7. mdrakibhasan752@gmail.com : Rakib Hasan : Rakib Hasan
  8. g39@exnik.com : meredithbriley :
  9. muhibbbc1@gmail.com : Muhibullah Chy : Muhibullah Chy
  10. olamcevoy@baby.discopied.com : olamcevoy1234 :
  11. g2@exnik.com : roseannaoreily4 :
  12. b13@exnik.com : sebastianstanfor :
  13. g29@exnik.com : tangelamedina :
  14. g24@exnik.com : teenaligar6 :
  15. b15@exnik.com : xugmerri6352 :
  16. g16@exnik.com : yzvhildegarde :

বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০১:৪২ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
Untitled-1
চুরিডাকাতি আর সন্ত্রাসী আমার এলাকায় হতে দিবো না-সজীব

চুরিডাকাতি আর সন্ত্রাসী আমার এলাকায় হতে দিবো না-সজীব

Advertisements

রাসেল হোছাইন, চট্টগ্রামঃ-

বেড়েছে চোরের দৌরাত্ম্য, হারাম হয়ে গেল গ্রামের অসহায় মানুষের দুই নয়নের ঘুম।প্রতিবছর শীতের মৌসুমে বেড়ে যায় চুরিডাকাতি। সাধারণ মানুষের অর্জিত টাকা আর জিনিসপত্র এখন নিজের ঘরে রাখা অসম্ভব হয়ে পড়েছে।

রাত আসলেই টেনশনের ঘন্টা বাজে এলাকার জনসাধারণের মনে।এলাকার প্রায় ঘরবাড়িতে তেমন নিরাপত্তা না থাকায় চোরদের চুরি করা খুব সহজ হয়।এভাবে প্রতিদিনই চোর নিয়ে হতভম্বে আছেন পূর্ব বড় ভেওলা ৭,৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের সাধারণ জনগণ। ওয়ার্ডগুলোর কয়েকজনে বলেন চোর ধরতে পারলেও এলাকার প্রভাবশালী মানুষের পরিচয় দিয়ে ছাড়া পেয়ে যায়।পরে অনিশ্চিত হয়ে পড়ে অভিযোগকারীর পরিবার।তাহলে চুরি হওয়ার পেছনে এলাকার কোন প্রভাবশালী ব্যক্তি বা প্রতিনিধি কী দায়ী নয়?
কেউ হারাচ্ছেন তাদের মূল্যবান গয়না,মোবাইল ল্যাপটপ আবার কেউ গরু ছাগল।
হিমেল নামের একটি ছেলের পেইজবুকে স্টাটাসঃ

কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের ৭,৮ এবং ৯ নং ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষের জনজীবন অতিষ্ট পর্যায়ে চলে গেছে এলাকার কিছু চুরের কারণে। ঐ চুরেরা রাত্রি বেলা গ্রামের অলিগলিতে গুরে বেড়ায়। সুযোগ বুঝে যেকোন বাড়িতে ঢুকে তাদের মূল্যবান জিনিসপত্র চুরি করে নিয়ে যায়।যদিওবা কোনখানে ধরা পড়ে তাহলে স্হানীয় জনপ্রতিনিধিদের বিচারের অবহেলায় তারা অনেক ক্ষেত্রে জনগণের হাত থেকে বেঁচে পালিয়ে যায়। কিংবা আইনের কাছে হস্তান্তর করলে কিছুদিন পর ছাড়া পেয়ে চলে আসে।মূলত এই চোর গুলো বাংলাদেশের প্রধান মাদক “ইয়াবা” খাওয়ার জন্যই এই চুরি গুলা করতেছে। এই ব্যাপারে আমি এলাকার সচেতন নাগরিক ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

অপরদিকে পূর্ব বড় ভেওলা নয়াপাড়া ৯ নং ওয়ার্ডের বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও প্রভাবশালী ব্যক্তি মাঈনুদ্দীন হাসান সজীব বলেন আমি যতদিন বেঁচে থাকবো আমার এলাকায় চোর,সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ী আর জোয়াড়ীদের ঠাঁই হবে না।আমি এলাকার মানুষের পাশে থেকে সুখী জীবনযাপন করতে চায়।
তিনি আরো বলেন চুরি-ডাকাতি রোধ ও অপরাধ দমনে আমি সতর্ক হয়েছি। কোন অপরাধী ছাড় পাবে না। যারাই জুয়া-মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িত রয়েছেন তাদেরকে আইনের আওতায় নিয়ে আসবো।সকলকে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে। শীত মৌসুমে এলাকায় চুরি-ডাকাতি বৃদ্ধি পাওয়ার আশংঙ্কা থাকে। তাই এলাকার সবাইকে রাতের বেলা নিজ নিজ ভিটা ঘরে সচেতন থাকতে হবে।

hostseba.com

চুরি-ডাকাতি প্রতিরোধে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন। সকল প্রকার।
চুরিডাকাতি আর সন্ত্রাসী চলবে না
এটাই হলো হাসান সজীবের ঘোষণা।

আপনার মতামত দিন

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team