বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২০, ১১:০৫ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
ব্রেকিং নিউজ :
উখিয়ায় শুভ উদ্বোধন হলো উখিয়া কোচিং ক্লাব (ইউসিসি) গুগলে কর্মরতদের সর্বোচ্চ বেতন কত? ঠাকুরগাঁওয়ে আ’লীগ-বিএনপির সভা, ১৪৪ ধারা জারি শেরপুরের শ্রীবরদীতে নানার নিকট ধর্ষণের শিকার নাতনী। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে দিবারাত্রি উম্মুক্ত শর্টপিছ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট-২০২০ আয়োজন লোহাগড়ায় অর্থনৈতিক অঞ্চল বাস্তবায়নের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত কালিয়ায় চারটি অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদ আনন্দ টিভির চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে নড়াইলে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ সাংবাদিক ফেডারেশন দিনাজপুর জেলা আহবায়ক কমিটি গঠন শেরপুরে ভাস্কর্য উচ্ছেদের জন্য মানববন্ধন ও ৭ দিনের আল্টিমেটাম

বাংলাদেশের পর ভারতেও পেঁয়াজের দামে আগুন

Advertisements

বিবিসিনিউজ২৪,ডেস্ক ঃ দামের ঊর্ধ্বগতি দিয়ে পেঁয়াজ যেন সত্যিকার অর্থেই তুর্কি নাচন নাচিয়ে ছাড়ছে ভারতীয় উপমহাদেশের সাধারণ মানুষকে। বিদেশ থেকে টনের পর টন পেঁয়াজ আমদানি করেও দামের লাগাম টানা যাচ্ছে না কিছুতেই। বাংলাদেশে অনেক আগেই পেঁয়াজের কেজি ২০০ টাকা ছাড়িয়েছে। এমনকি বিক্রি হয়েছে আড়াইশ টাকার বেশি দামেও। এবার ভারতেও পেঁয়াজের দাম ১৫০ রুপি ছাড়াল। যা নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার তুমুল তর্ক হয়েছে দেশটির পার্লামেন্টেও।

আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, মুর্শিদাবাদের বেশ কিছু বাজার এবং কলকাতার একটি বাজারে গত বুধবার পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ১৫০ রুপি কেজি দরে। এর মধ্যে মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে গঠিত রাজ্য সরকারের টাস্ক ফোর্সও জানিয়ে দিল, চলতি মাসে পেঁয়াজের এই সঙ্কট শেষ হওয়ার সম্ভাবনা কম।

বুধবার মুর্শিদাবাদের হরিহরপাড়া বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে কেজিপ্রতি ১৫০ রুপি। নওদার আমতলা বাজারেও পেঁয়াজের দাম ১৪০-১৫০ রুপি কেজি। কলকাতায় রাজডাঙা বাজারেও পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ১৫০ রুপি দরে। এ ছাড়া গড়িয়াহাট, মানিকতলা, লেক মার্কেট, ল্যান্সডাউনের বাজারগুলোতে দর উঠেছিল ১৪০ রুপি। পেঁয়াজের ঝাঁজ মানুষকে কাঁদিয়ে ছাড়লেও টাস্ক ফোর্সের সদস্যরা আশার কথা শোনাতে পারেননি। টাস্ক ফোর্সের সদস্য রবীন্দ্রনাথ কোলে বলেন, শীতে অন্যান্য সবজির দাম কমতে শুরু করেছে। কিন্তু এ মাসে পেঁয়াজের সঙ্কট চলবে বলেই আশঙ্কা হচ্ছে।

পশ্চিমবঙ্গের মতো দিল্লিতেও পেঁয়াজের দাম শতক পার করেছে। পেঁয়াজ নিয়ে এ দিন পার্লামেন্টেও সরব হন বিরোধীরা। তাদের প্রশ্নের মুখে ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানান, মহারাষ্ট্রের মতো রাজ্যে বন্যার ফলে উৎপাদন মার খেয়েছে। তবে দাম নিয়ন্ত্রণে সরকার কম দামে পেঁয়াজ সরবরাহ করছে। রফতানি বন্ধ হয়েছে। পাইকারি ব্যবসায়ী ও আড়তদারের জন্য মজুদের ঊর্ধ্বসীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে। যদিও দাম কবে নাগালের মধ্যে আসবে, তা নিয়ে কোনো প্রতিশ্রুতি দিতে পারেননি নির্মলা।

আপনি কত দামে পেঁয়াজ কিনছেন? বিরোধীদের এমন প্রশ্নের জবাবে নির্মলা বলেন, ‘আমি পেঁয়াজ, রসুন খাই না বললেই চলে। তাই আমাকে নিয়ে উদ্বিগ্ন হবেন না। আমি যে পরিবার থেকে এসেছি, সেখানে পেঁয়াজের ততটা চল নেই।’ এর পরেই বিরোধী এমপিরা সীতারামনকে ‘মারি আঁতোয়ানেত’ বলে কটাক্ষ করেন। ফ্রান্সে রাজা ষোড়শ লুইয়ের সময় যখন ভয়ঙ্কর খাদ্য সঙ্কট চলছে, তখন রানি মারি আঁতোয়ানেত প্রজাদের পাউরুটি খেয়ে থাকতে বলেছিলেন। সীতারামনের ওই বক্তব্য নিয়ে এদিন তাকে কটাক্ষ করেন ভারতের প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরমও

hostseba.com
আপনার মতামত দিন

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team