শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:৫৭ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
ব্রেকিং নিউজ :
মসজিদুল আকসা রক্ষায় সব মুসলিম দেশ এক হ্ওয়ার আশংখা আবারো বোরকার বিরুদ্ধে সরব তসলিমা নাসরিন প্রখ্যাত মিজানুর রহমান আজহারীর বিরুদ্ধে অশ্লীলতার অভিযোগ (ভিডিও) মুসলিমরা সন্ত্রাসী নয়, ইসলাম সন্ত্রাসী বানায় না: এরদোগান শেরপুর শ্রীবরদীতে উপজেলা ও পৌর বি এন পির আহ্বায়ক কমিটি গঠন যশোরে শার্শায় শুরু হয়েছে খেজুর রস সংগ্রহ টাংগাইলের নাগরপুরে প্রশাসনের নাকের উপর দিয়ে চলছে ড্রেজার ব্যাবসা বীর মুক্তিযোদ্ধা সেকান্দর হায়াত খানের ছেলের চট্টগ্রাম -৮ আসনের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ সোনাকানিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্টিত অর্থ আত্মসাত মামলায় কারাগারে মাহী এন্টারপ্রাইজের ম্যানেজার আবুল কাশেম

টাংগাইলে মানববন্ধন

Advertisements

মোঃ মাহমুদুল হাসান-নাগরপুর প্রতিনিধি: গত ৩ডিসেম্বর মঙ্গলবার সকালে টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ভাদ্রা ইউনিয়নের আটিয়া উলাইল এর “সোহাগ রিয়া এগ্রো খামার” প্রতারনার শিকারে স্বর্বশান্ত হয়ে এলাকাবাসীর উদ্যোগে আটিয়া উলাইল গ্রামে এক মানববন্ধন করে। এ সময় আটিয়া উলাইল ও আশে-পাশের কয়েক গ্রামের লোকজন উপস্থিত ছিলেন। সোহাগ রিয়া এগ্রো ফার্ম এর মালিক সোহাগ এর স্ত্রী, শ্বাশুরী, শ্যালক ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত কোরবানী ১২ আগষ্ট ২০১৯ দৌলতপুর উপজেলার কলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন, সোহাগ রিয়া এগ্রো ফার্ম থেকে ১৪টি গরু ১৭ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা দাম সাব্যস্ত করে ক্রয় করেন।

পরে তিনি, নগদ ৪৫ হাজার টাকা দিয়ে অবশিষ্ট ১৭লক্ষ টাকা কোরবানী ঈদের পরদিন পরিশোধ করবেন, বলে গরুগুলো খামার থেকে নিয়ে যান। খামারী সরল বিশ্বাসে চেয়ারম্যান এর মিষ্টি কথায়, তাকে জনপ্রতিনিধি হিসেবে ১৪ টি গরু দিয়ে বুকভরা আশা খামার বড় করার স্বপ্ন নিয়ে অপেক্ষায় থাকেন খামারী। কিন্তু ঈদ পেরুলেও আজ পর্যন্ত বিভিন্ন তালবাহানায় চেয়ারম্যান পাওনা টাকা দেয়নি পাওনা ১৭ লক্ষ টাকা। এদিকে ঋণগ্রস্থ খামারী ঋণের তাড়নায় স্বর্বস্ব হারিয়ে খামারের শুরুতেই নিঃস্ব হয়ে মাননীয় সাংসদ নাঈমুর রহমান দূর্জয় এর কাছে বিষয়টি জানালে, তিনি সমুদয় টাকা দুই কিস্তিতে চেয়ারম্যানকে পরিশোধের কথা বলেন। পরে চেয়ারম্যান গত ১৫ নভেম্বর তারিখে বাংলাদেশ সোনালী ব্যাংক দৌলতপুর শাখার চলিত হিসাব নং ৫০৩২০০০০১০৮০ এর ৯৩৫০৯৩৭ নং ক্রমিকের একটি ১০ লক্ষ টাকার চেক খামারীকে প্রদান করেন।

ঐ একাউন্টে পর্যাপ্ত টাকা না থাকায় নিঃস্ব খামারী আরো দিশেহারা হয়ে পড়েন। খামারী ও এলাকাবাসী, চেয়ারম্যানের এমন প্রতারণায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষনের জন্য মানববন্ধন করেন। এ সময় সোহাগের শাশুরী হাসিনা বেগম, স্ত্রী রিয়া ও শ্যালক ভাদ্রা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রায়হান হামিদ হৃদয়, কালাচাঁন মাতাব্বর, আমেদ আলী, মেম্বার ৭ং ভাদ্রা ইউপি সদস্য সোহরাব সাবেক সদস্য আব্বাস, ছালাম তালুকদার, যুবলীগের সভাপতি ছাত্তার সহ শত শত এলাকাবসী এসময় মানববন্ধে উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত সকলেই প্রতারক জাকির চেয়ারম্যান এর সুষ্ঠ বিচার ও ন্যায্য পাওনা টাকা দাবি করেন

আপনার মতামত দিন

hostseba.com

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team