শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৪:০০ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
সাতকানিয়ার আওয়ামী পরিবারের যে কারনে বাতি ঘর মোসাদ চৌধুরী

সাতকানিয়ার আওয়ামী পরিবারের যে কারনে বাতি ঘর মোসাদ চৌধুরী

Advertisements

সৈয়দ আক্কাস উদদীন: সাতকানিয়া উপজেলার এক সম্ভ্রান্ত পরিবারের গর্বিত সন্তানের নাম হলো মোসাদ চৌধুরী।শৈশব কৈশর যৌবন এবং সর্বোপরি বার্ধক্যে এসে ও মুক্তিযোদ্বের চেতনায় অবিচল থেকে পথচলা এক নির্ভীক যোদ্বার নাম মোসাদ চৌধুরী।যার জন্ম সাতকানিয়া উপজেলার ছদাহা ইউনিয়নে।

তার জন্মটা ও কিন্তু আওয়ামীলীগ হয়ে, কারন তার পিতা একজন এদেশের স্বাধীকার আন্দোলনের অকুতভয় সৈনিক,তার পিতার নাম বীর মুক্তিযোদ্বা আলহাজ্ব আবুল মোস্তফা চৌধুরী,
যিনি ১৯৭২সাল থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু সরকারের রিলিফ কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন।

এবং ১৯৫৪ সাল থেকে ৯০ সাল পর্যন্ত ছদাহা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছিলেন।এবং উপজেলা আওয়ামীলীগের ও গুরুত্বপূর্ন পদে ছিলেন এই মোসাদ চৌধুরীর আব্বা।

পারিবারিক আবহে আব্বার পরিচয়েই সরাসরি আওয়ামীলীগার হয়ে বুক দাপিঁয়ে সাতকানিয়ার বুকে, আওয়ামী পতাকার বৈটা নিয়ে দূর্বার গতিতে ঠিক একই রকম ভাবে এগিয়ে যাচ্ছে এই মোসাদ চৌধুরী।

যিনি ১৯৮৭ থেকে ১৯৯৪সাল পর্যন্ত সাতকানিয়া কলেজ ছাত্রলীগে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন দায়িত্ব পালন করেন।১৯৯৮সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত সফল ভাবে ছদাহা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন এই মোসাদ চৌ:

hostseba.com

এবং আওয়ামীলীগের প্রত্যক্ষ সমর্থনে ২০১১সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে, পরে সরাসরি আবারো নৌকা প্রতিকে একই ইউনিয়নে জনপ্রিয়তার সহিত পুনরায় চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

রাজনীতির পাশাপাশি মোসাদ চৌধুরী নীরবে নিভৃতে শিক্ষার উন্নয়নে ও বলিষ্ঠ সাক্ষর রেখে যাচ্ছেন।তিনি পূর্ব ছদাহা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জমিদাতা ও বটে।এবং স্থানীয় পর্যায়ে অনুসন্দান করে জানা গেলো স্থানীয় জামায়াতের জম এই মোসাদ।

তিনি ২০১৪সালে যখন স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি জামায়াত বিএনপি সমগ্র বাংলাদেশ ব্যাপী অরাজকতা কায়েম করেছিলো তখন তিনি ছদাহা ইউনিয়নে তাদেরকে শক্ত হাতে দমন করেছিলেন।

এই রিপোর্ট লেখার সময় প্রতিবেদক মোসাদ চৌধুরীর দীর্ঘরাজনৈতিক জীবনের কতটা প্রাপ্তি অপ্রাপ্তি রয়েছে এবং যা পেলো তার অনুভূতি কি জানতে চেয়ে কল করলে তিনি বলেন,
আলহামদুলিল্লাহ, আমি বেশ ভালোই আছি এবং শেষ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর আদর্শে যেন আমার শেষ নি:শেষ ত্যাগ হয় সে কামনা করেন।

এবং বেশ কয়েকদিন আগে একটি জাতীয় দৈনিকে তাকে নিয়ে বিভ্রান্ত মূলক সংবাদ প্রচার করায় দু:খ প্রকাশ করেন,
এবং ভবিস্যতে যাতে এরকম নিউজ না হয় সে বিষয়ে সাংবাদিক মহলের প্রতি অনুরোধ জানান।

আপনার মতামত দিন

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team