বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ০৫:৩৩ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
ব্রেকিং নিউজ :
দেলদুয়ার উপজেলা সদর ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন। বাঁশখালীতে মুক্তিযোদ্ধার বসতঘরে হামলা ও ভাংচুর বেনাপোল সীমান্তে দালালসহ ৫৪ জন আটক শার্শার নাভারনে মিজানের বৃক্ষরোপণ ও বিতরন অনুষ্ঠান শার্শা উপজেলায় লবনের বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের প্রাথমিক শিক্ষা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে সেন্ট্রাল লায়ন্স ও লিও ক্লাব সাতক্ষীরায় ট্রাকের ধাক্কায় নছিমন চালক এখছার নিহত। কেশবপুরে ৮দলীয় কাবাডি গড়ভাঙ্গা ইসলামীয়া দাখিল মাদ্রাসা চ্যাম্পিয়ন কক্সবাজার শহরের বার্মিজ মার্কেট এলাকায় ছিনতাইকারীর চুরিকাঘাতে স্কুল ছাত্র আহত। দক্ষিন জেলা যুবলীগের মত বিনিময় সভায় সাতকানিয়া উপজেলা যুবলীগ নেতৃবৃন্দ
পেঁয়াজের দাম বাড়লেও মূল্যস্ফীতি কমেছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

পেঁয়াজের দাম বাড়লেও মূল্যস্ফীতি কমেছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

Advertisements

জাতীয় ডেস্কঃ ‘পেঁয়াজের দাম বাড়লেও সার্বিকভাবে মূল্যস্ফীতি কমেছে। সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। যেমন, সবজি, মাছ, ফল, চালের দাম কমেছে।’- পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এসব কথা বলেছেন।

মন্ত্রী জানান, গ্রামে সার্বিক মূল্যস্ফীতি পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে কমে দাঁড়িয়েছে ৫.৩৬ শতাংশে, যা তার আগের মাসে ছিল ৫.৪১ শতাংশ। খাদ্যপণ্যের মূল্যস্ফীতি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫.৫৬ শতাংশে, যা তার আগের মাসে ছিল ৫.৪০ শতাংশ। খাদ্য বহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৪.৯৬ শতাংশে, যা তার আগের মাসে ছিল ৫.৪২ শতাংশ।

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সাথে ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এ সব তথ্য জানান।

বিফ্রিংয়ে জানানো হয়, অক্টোবরে খাদ্যপণ্যের মূল্যস্ফীতি বেড়েছিল ৫.৪৯ শতাংশে, যা তার আগের মাসে ছিল ৫.৩০ শতাংশ। খাদ্য বহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৫.৪৫ শতাংশে, যা তার আগের মাসে ছিল ৫.৯২ শতাংশ।

শহরে সার্বিক মূল্যস্ফীতি পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে কমে দাঁড়িয়েছে ৫.৬৭ শতাংশে, যা তার আগের মাসে ছিল ৫.৮০ শতাংশ। খাদ্যপণ্যের মূল্যস্ফীতি বেড়ে দাড়িয়েছে ৫.৩১ শতাংশে, যা তার আগের মাসে ছিল ৫.১০ শতাংশ। খাদ্য বহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৬.০৯ শতাংশে, যা তার আগের মাসে ছিল ৬.৬১ শতাংশ।

বাজারের জিনিসপত্রের দামের সাথে পরিসংখ্যান ব্যুরোর এই তথ্য বিভ্রান্তিকর। বাজারে পণ্য মূল্য চড়া এবং পেঁয়াজের দাম নাগালের বাইরে থাকলেও পরিসংখ্যান ব্যুরো বলছে- বাজারে পণ্যমূল্য কমছে। যার কারণে সার্বিক মূল্যস্ফীতি কমেছে। পাশাপাশি মজুরি হার হ্রাসের কারণও ব্যাখ্যা করতে পারেননি পরিসংখ্যান সচিব ও মহাপরিচালক।

hostseba.com

বিবিএস দাবি করেছে, শাকসবজি ও পণ্যমূল্য কমছে বলেই সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার কমেছে। তবে বাস্তবতা হলো- বাজারে কাঁচা মরিচ ও আলু ছাড়া ৫০ টাকার নিচে কোনো পণ্যের দাম নেই। বিবিএসের দাবি, শীতের সবজির দাম কমেছে। কিন্তু বাজারে শিম ১২০ টাকা, টমেটো ১২০ টাকা, বরবটি ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

আপনার মতামত দিন

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team