বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১২:১৬ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
ব্রেকিং নিউজ :
জাপানে এখনও বিরাজ করছে টাইফুনের প্রভাব,নিহত বেড়ে ৭৪ সড়ক ব্যবহারে সচেতন হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর। কাশ্মীরে বন্ধ মোবাইল এসএমএস সেবা যুক্তরাষ্ট্রের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছেন তুরস্ক। অনুষ্ঠিত হল আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা ’ফ্লোরিডা ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড এন্ড কালচারাল এক্সপো ২০১৯’। পাসপোর্টে পুলিশি ভেরিফিকেশন কেন? জলবায়ু তহবিল গঠনে আন্তর্জাতিক তহবিল গঠন করা জরুরি-ডেপুটি স্পিকার রাঙ্গামাটির বরকল উপজেলার ভুষনছড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক এবং সাধারন সম্পাদক আবু সাইদ লাখো মানুষের মন জয় করে ৩ বছরে পদার্পণ করল দৈনিক আলোকিত সকাল রোহিঙ্গা ইস্যুতে ত্রি-দেশীয় সম্মেলনে যোগদান করতে ৮ দিনের সফরে ভারত যাচ্ছেন সাংবাদিক এইচএম নজরুল
অক্টোবরের শেষেই অর্থ সংকটে পড়তে পারে জাতিসংঘ-অ্যান্তনিও গুতেরেস

অক্টোবরের শেষেই অর্থ সংকটে পড়তে পারে জাতিসংঘ-অ্যান্তনিও গুতেরেস

Advertisements

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ অক্টোবরের শেষের দিকেই তহবিল ফুরিয়ে যাচ্ছে জাতিসংঘের। ইতোমধ্যেই সংস্থাটি ২৩০ মিলিয়ন ডলার ঘাটতিতে আছে। জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস সোমবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছেন। চলতি মাসের শেষের দিকেই সংস্থাটি অর্থ সংকটে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি।

জাতিসংঘের ৩৭ হাজার কর্মী এবং এর দফতরের উদ্দেশে লেখা এক চিঠিতে গুতেরেস বলেন, বেতন এবং অন্যান্য সুযোগ সুবিধা নিশ্চিতে অনির্ধারিত কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। তবে এটা স্বল্পমেয়াদী।

ওই চিঠিতে তিনি লিখেছেন, ২০১৯ সালে আমাদের নিয়মিত বাজেটে যে অর্থ প্রয়োজন বিভিন্ন সদস্য রাষ্ট্রগুলো তার মাত্র ৭০ ভাগ প্রদান করেছে। এর ফলে সেপ্টেম্বরের শেষের দিকে নগদ ২৩০ মিলিয়ন ডলার ঘাটতি দেখা দেয়। চলতি মাসের শেষের দিকেই আমরা অর্থ সংকটে পড়তে পারি।

খরচ কমাতে এই মুহূর্তে বিভিন্ন সম্মেলন ও বৈঠক বাতিল এবং সেবা কমিয়ে আনার কথা উল্লেখ করেছেন গুতেরেস। একই সঙ্গে শুধুমাত্র জরুরি প্রয়োজন ছাড়া জাতিসংঘের কর্মকর্তাদের বিভিন্ন দেশে ভ্রমণ স্থগিতের কথাও জানিয়েছেন তিনি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জাতিসংঘের এক কর্মকর্তা বলেন, চলতি বছরের শুরুতেই বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ এই সংস্থার তহবিল বাড়ানোর বিষয়ে সদস্য রাষ্ট্রগুলোকে আহ্বান জানিয়েছিলেন গুরেতেস। কিন্তু সদস্য রাষ্ট্রগুলো তা প্রত্যাখ্যান করেছে। গুতেরেস বলেছেন, আমাদের আর্থিক অবস্থা আমাদের সদস্য রাষ্ট্রগুলোর ওপরই নির্ভর করছে।

আপনার মতামত দিন
bbc-news-24-ads

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team