রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:৪৯ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
ব্রেকিং নিউজ :
সরকারের শুদ্ধি অভিযানে আকবরশাহ থানার ওসি মাদক নির্মূলে বিজিবির ব্যতিক্রমী কার্যক্রম কারাগারে কন্যা সন্তানের মা হলেন নুসরাত হত্যা মামলার আসামী মনি লামায় স্ত্রীর সাথে অভিমান করে প্রতিবন্ধী যুবকের আত্মহত্যা। প্রধানমন্ত্রীর অ্যাকশন শুরু,চলবে সারাদেশে,রেহাই নেই দুর্নীতিবাজের সীতাকুণ্ড অনলাইন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন’র বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালিত শেরপুরে ইয়াবা টেবলেটসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার চুনারুঘাটে শিক্ষক ও ছাত্রীদের উপর হামলায় পলাতক আসামী গ্রেফতারের দাবীতে মানবন্ধন একজন শাহ্আলম এবং আমাদের প্রধানমন্ত্রী ব্যারিষ্টার বিপ্লবের সাথে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাক্ষাৎ
বাবা-ছেলের আলাদা দলের রাজনীতি করা দোষের না: মির্জা ফখরুল

বাবা-ছেলের আলাদা দলের রাজনীতি করা দোষের না: মির্জা ফখরুল

Advertisements

অনলাইন ডেস্কঃ- গণতান্ত্রিক দেশে বাবা-ছেলের আলাদা দলের রাজনীতি করাটা দোষের কিছু না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ছাত্রদলের কাউন্সিলে আওয়ামী লীগ নেতার ছেলের সভাপতি পদে প্রার্থী হওয়া নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, ছাত্রজীবনে বাবা একটা দলের রাজনীতি করতেন আর আমি করতাম অন্য দলের। এতে কোনো সমস্যা হয়নি।
বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিএনপির যৌথসভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে ফখরুল এ কথা বলেন।

কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সভাপতি পদে প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় থাকা কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ আওয়ামী পরিবারের সন্তান। তার বাবা যশোরের কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান। তার তিন ভাই যশোর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। এ নিয়ে তৃণমূলে অনেক আলোচনা চলছে।

এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে মির্জা ফখরুল বলেন, গণতান্ত্রিক দেশে থাকতেই পারে যে বাবা একটা রাজনীতি করবেন, আমি একটা রাজনীতি করব। আমার ছাত্রজীবনে আমার বাবা একটা দলের রাজনীতি করতেন আর আমি একটা করতাম। কখনও কোনো সমস্যা হয়নি। না বাবার হয়েছে, না আমার হয়েছে। এখন তো ছেলে বিপদে পড়ে যাচ্ছে, তার বাবা যদি আওয়ামী লীগ করে থাকে, তা হলে তার ছেলে বিএনপি বা ছাত্রদল করলে তার বিপদ হবে। আবার বাবার বিপদ হবে, তার ছেলে ছাত্রদল করলে। এখন এমন অবস্থা হয়েছে যে, ভিন্নমত পোষণ করা যাবে না।

এর আগে, সোমবার সংবাদ সম্মেলন করে শ্রাবণের বাবা কাজী রফিকুল ইসলাম জানান, পরিবারের সাথে শ্রাবণের কোনো যোগাযোগ নাই। মূলত ভিন্ন আদর্শের রাজনীতি করার কারণেই তার সাথে যোগাযোগ রাখেন না পরিবেরর কেউ। শ্রাবণও তাদের সাথে যোগাযোগ করেন না বলে জানান।

hostseba.com
আপনার মতামত দিন
bbc-news-24-ads

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team