শনিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২০, ০৮:০৮ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
ব্রেকিং নিউজ :
গোলপাহাড় “বঙ্গবন্ধু রৌপকাপ শর্টপিচ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত শেখেরখীল ফাঁড়িরমূখ বেইলী ব্রীজের বেহাল দশা, দুই ইউনিয়নের যোগাযোগ হুমকির পথে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে মিজানুর রহমান জনির শুভেচ্ছা যশোরের শার্শায় ট্রেন-ইজিবাইক মুখোমুখি সংঘর্ষ দুর্দমনীয় ২০১২ ব্যাচের মিলনমেলা ২০২০ অনুষ্ঠিত চরম্বা ইউনিয়নে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পরিষদ কার্যালয় উদ্বোধন বগুড়া অন্তর্ভুক্ত আন্তঃজেলা ট্রাক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের ১২ তম ত্রি-বার্ষিকী সাধারণ নির্বাচনের(2020-22) জামুন্দে পত্র জমা “ নাগরপুরে সজল সিকদার এর প্রতারনা ও ধর্ষনের প্রতিবাদে মানববন্ধন ব্লাড ব্যাংক চিটাগাং এর শুভ উদ্ভোধন এর মাধ্যমে যাত্রা শুরু কমরেড অমল সেনের সপ্তদশ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ২ দিনব্যাপি স্মরণ মেলা
মেহেদি দিতে গিয়ে ধর্ষণের ঘটনায় শিকার শিশুর ২ আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

মেহেদি দিতে গিয়ে ধর্ষণের ঘটনায় শিকার শিশুর ২ আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

Advertisements

বিবিসিনিউজ২৪,ডেস্কঃ বাড়ির পাশে আত্মীয়ের বাড়ি হাতে মেহেদি লাগাতে গিয়ে ১২ বছরের এক শিশুর দুই ধর্ষক পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ভোলা সদর উপজেলায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন-সদর উপজেলার চরসামাইয়া ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সৈয়দ আহম্মেদের ছেলে আল আমিন (২৫) ও কামাল মিস্ত্রির ছেলে মঞ্জুর আলম (৩০)। তারা দুজনই ওই শিশু গণধর্ষণ মামলার প্রধান দুই আসামি ছিলেন।

এর আগে ঈদের আগের দিন (রোববার) রাতে ভোলার সদর উপজেলায় ওই শিশু গণধর্ষণের শিকার হয়। শিশুটি স্থানীয় একটি স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী। তাকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (শেবাচিম) ভর্তি করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভোলা মডেল থানা পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) শিখর। তিনি জানান, মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে রাজাপুর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ রাজাপুরে নদীর তীর সংলগ্ন এলাকায় স্কুলছাত্রী গণধর্ষণ মামলার আসামিদের ধরতে যায পুলিশ। এ সময় আসামিরা উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি করে। এতে গণধর্ষণ মামলার প্রধান দুই আসামি নিহত হয়েছেন। তাদের মরদেহ ভোলা সদর হাসপাতালে রাখা রয়েছে।

শিশুটির পরিবারে সূত্রে জানা গেছে, গত রোববার রাত ৮টার দিকে প্রতিবেশী ও দূরসম্পর্কের এক আত্মীয়ের বাড়িতে হাতে মেহেদি লাগানোর জন্য যায় শিশুটি। এ সময় ওই প্রতিবেশীর ভাড়াটে আল আমিন শিশুটিকে ‘কথা আছে’ বলে নিজের ঘরে ডেকে নেন। সেখানে উপস্থিত ছিল তার বন্ধু মঞ্জু। স্ত্রী ঘরে না থাকার সুযোগে শিশুটির হাত-পা বেঁধে ও মুখে কাপড় গুঁজে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায় তারা। শিশুটির গোঙানির শব্দ পেয়ে প্রতিবেশীরা গিয়ে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

hostseba.com

অবস্থার অবনতি ঘটলে গত সোমবার বিকেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য শিশুটিকে শেবাচিমে পাঠান কর্তব্যরত চিকিৎসক। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে তিনজনকে আসামি করে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেছেন।

আপনার মতামত দিন

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team