শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৫:০৬ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
ব্রেকিং নিউজ :
খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে খাগড়াছড়িতে যুবদলের মানববন্ধন শার্শার সীমান্ত থেকে ফেনসিডিলসহ কারবারি আটক সাতকানিয়ায় নিস্পাপ শিশুকে হত্যা আটক ২ ঝুঁকির কবলে বাঁশখালী-কুতুবদিয়া যোগাযোগের ছনুয়া জেটিঘাট! এ যুদ্ব কেবল ক্যাসিনো এর বিরুদ্বে নয় টোটাল মাদকের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা ওসি(তদন্ত) বিপুল চন্দ্র দেবনাথ। সাংবাদিক রুবেলের উপর সন্ত্রাসী হামলা.. বর্নাঢ্য আয়োজনে যুবলীগের মাসুমের জন্মদিন পালিত : চট্টগ্রাম মহানগর সাভারে পৌর আওয়ামীলীগের সহ প্রচার সম্পাদক কে হত্যার প্রতিবাদ সভা পালিত লামা সরকারি হাসপাতালে অন্তবিহীন দুর্নীতি,অনিয়ম ও অপরিছন্নতার অভিযোগ।
মুসলিমদের গণপিটুনি বন্ধে ভারতের সুপ্রিম কোর্টের নোটিশ

মুসলিমদের গণপিটুনি বন্ধে ভারতের সুপ্রিম কোর্টের নোটিশ

মুসলিমদের গণপিটুনি বন্ধে ভারতের সুপ্রিম কোর্টের নোটিশ
মুসলিমদের গণপিটুনি বন্ধে ভারতের সুপ্রিম কোর্টের নোটিশ
Advertisements

আন্তর্জাতিক, বিবিসিনিউজ২৪ ডেস্ক:দেশব্যাপী চলতে থাকা মুসলিমদের ‘গণপিটুনি’ বন্ধে আদালতের নির্দেশিকা অনুযায়ী ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কী পদক্ষেপ নিয়েছে, তা জানতে চেয়ে নোটিশ জারি করেছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট।

আজ শনিবার কেন্দ্রীয় সরকার এবং সংশ্লিষ্ট ১০টি রাজ্য সরকারের কাছে এর জবাব চেয়েছেন দেশটির প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের বেঞ্চ।

মুসলিম নারীদের অধিকারের কথা বলে মোদি সরকার তিন তালাকে শাস্তির বিল আনছে। কিন্তু মোদি সরকারের আমলে ক্রমবর্ধমান গণপিটুনি, বিশেষ করে ভিড় জমিয়ে মুসলিমদের মারধর ঠেকাতে সুপ্রিম কোর্টের সুপারিশ সত্ত্বেও আইন আনছে না বলে অভিযোগ উঠেছে। তিন তালাক বিলের বিতর্কে বিরোধী দলের এমপিরা মোদি সরকারকে এ নিয়ে প্রশ্নও করেছিলেন।

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ পালন হচ্ছে না অভিযোগ তুলে একটি সংগঠন এ নিয়ে জনস্বার্থে মামলা করে। শনিবার এর ভিত্তিতেই দেশটির প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের বেঞ্চ কেন্দ্র ও ১০টি রাজ্যের কাছে জবাব চেয়েছেন।

এক বছর আগে সুপ্রিম কোর্টের সাবেক প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের বেঞ্চ সুপারিশ করেছিলেন, দেশে গণপিটুনি বন্ধ করতে কেন্দ্রীয় সরকার নতুন আইন আনুক। গণপিটুনি রুখতে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারগুলোর জন্য নির্দেশিকাও তৈরি করে দিয়েছিল।

hostseba.com

সেই নির্দেশের কতটা পালন হয়েছে, তা জানতে চেয়ে শনিবার পশ্চিমবঙ্গ, গুজরাত, অসম, বিহার, ঝাড়খণ্ড, উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ ও জম্মু-কাশ্মীর সরকারকে নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

শীর্ষ আদালতের সুপারিশ ছিল, সংসদে গণপিটুনি রুখতে আইন তৈরি হোক। কড়া শাস্তির ব্যবস্থা হোক। বিশেষ আইন হলে মানুষের মনে এই হিংসায় জড়িয়ে পড়ার আগে ভয় তৈরি হবে। ২০১৮-র ১৭ জুলাই ওই রায় হলেও গত এক বছরে মোদি সরকার এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ করেনি। গণপিটুনিও বন্ধ হয়নি। উল্টে ‘জয় শ্রীরাম’ বলার জন্য চাপ দিয়ে মুসলিমদের মারধরের ঘটনা ক্রমশ বাড়ছে।

সূত্র : আনন্দবাজার

আপনার মতামত দিন
bbc-news-24-ads

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team