বুধবার, ২৪ Jul ২০১৯, ১২:১১ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
ব্রেকিং নিউজ :
বিবিসিনিউজ২৪ এর ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন থাই ব্যবসায়ী মেয়ের পাত্র খুঁজছেন, দেবেন লাখো ডলার নাইক্ষ‌্যংছড়ি’র সোনাইছড়িতে হতদরিদ্রদের সোলার ও সেলাই মেশিন বিতরন রাজধানীতে বড় বোমার সন্ধান,ঘিরে রেখেছে পুলিশ চট্টগ্রামে মোটরসাইকেল নিয়ে প্রতিযোগীতা,দুই তরুণের মর্মান্তিক মৃত্যু প্রধানমন্ত্রীর চোখে অস্ত্রোপচার সম্পন্ন ইসলামপুরে বিএনপির উদ্যোগে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ইসলামপুরের গাইবান্ধা ইউনিয়নে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে বজ্রপাতে নিহত ৪, আহত ১০ গনধোলাইয়ে রেনু হত্যার মূল আসামি আটক হালিশহরে আগুনে পুড়ে মা-মেয়ের মৃত্যু সিলেটে গাছের ডালে বিশাল আকৃতির অজগর সাপ
সমকামিতা ও ছাত্রীদের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিতেন ইংরেজি শিক্ষক1 min read

সমকামিতা ও ছাত্রীদের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিতেন ইংরেজি শিক্ষক1 min read

সমকামিতা ও ছাত্রীদের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিতেন ইংরেজি শিক্ষক
সমকামিতা ও ছাত্রীদের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিতেন ইংরেজি শিক্ষক
Advertisements

সমকামিতা ও ছাত্রীদের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিতেন ইংরেজি শিক্ষক

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি,বিবিসিনিউজ২৪: টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলায় কেন্দুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজি শিক্ষক মুহম্মদ ওবাইদুল ইসলামের বিরুদ্ধে ছাত্রদের সঙ্গে সমকামিতা, ছাত্রীদের স্পর্শকাতর স্থানে হাত ও ফেল করার ভয় দেখিয়ে যৌন নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল মঙ্গলবার (৯ জুলাই) এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবকরা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক ময়মনসিংহ আঞ্চলিক শিক্ষা কার্যালয়ের উপপরিচালক এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগে অভিভাবকরা জানিয়েছেন, কেন্দুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজি শিক্ষক ওবাইদুল ইসলাম স্কুলের বিভিন্ন ছাত্রকে পড়ানোর নাম করে তাদের সঙ্গে সমকামিতা করতেন। কোনো ছাত্র রাজী না হলে তার বাড়িতে গিয়ে রাত যাপন করতেন। ইংরেজি বিষয়ে ফেল করার ভয় দেখিয়ে তাদের সমকামিতায় বাধ্যও করতেন ওই শিক্ষক। শুধু তাই নয়, স্কুলের ভেতরেই বিভিন্ন ছাত্রীদের নিজ কক্ষে ডেকে নিয়ে তাদের শরীরের স্পর্শকাতরস্থানে হাত দিতেন। জড়িয়ে ধরে যৌন নির্যাতনও করেন।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা একজোট হয়ে স্কুল ঘেরাও করে বিক্ষোভ করতে শুরু করেন। পরে কেন্দুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমান ও বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আহমদ আল ফরিদ ওই শিক্ষককে শাস্তি দেওয়ার আশ্বাস জানিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

এদিকে অভিভাবকরা ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করায় এলাকার ছাত্রলীগের সদস্য জাফর আহমেদসহ সাত জনের বিরুদ্ধে টাঙ্গাইল আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন ওবাইদুল ইসলাম। এতে এলাকাবাসীরাও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে।

এ বিষয়ে কেন্দুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমানের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, ঘটনা সত্য। যাদের সঙ্গে এ ঘটনা ঘটেছে তাদের সঙ্গে কথা বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। সব অভিযোগ তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মতামত দিন

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team