মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৪:০৮ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
‘বাবা, আমার অফিসে আগুন লাগছে,যেভাবেই হোক আমাকে বাঁচাও!

‘বাবা, আমার অফিসে আগুন লাগছে,যেভাবেই হোক আমাকে বাঁচাও!

Advertisements

বিবিসিনিউজ২৪,ডেস্ক ঃ ‘বাবা, আমার অফিসে আগুন লাগছে, বের হতে পারছি না; যেভাবেই হোক আমাকে বাঁচাও’ মেয়ের এমন আকুতি শুনেই ঢাকার পথে রওনা দেন অ্যাডভোকেট মাসুদুর রহমান মাসুদ। কিন্তু রাত ৯টায় যখন তিনি কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পৌঁছান, ততক্ষণে নিভে গেছে মেয়ের জীবন প্রদীপ।

একমাত্র মেয়ের আগুনে পোড়া লাশ দেখে তাই পাগলপ্রায় অ্যাডভোকেট মাসুদ। মাত্র আট মাস আগেই মেয়ে তানজিলা মৌলি মিথির বিয়ে দিয়েছিলেন। বিয়ের পরই মেয়ে লেখাপড়ার পাশাপাশি যোগ দিয়েছিলেন এক ট্যুরিজম কোম্পানির চাকরিতে। সেই কর্মস্থলেই গতকাল বৃহস্পতিবার আগুন লেগে দগ্ধ হয়ে মারা যান মিথি।

মিথির বাবা অ্যাডভোকেট মাসুদুর রহমান মাসুদ বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার পৌর এলাকার বশিপুর সরদার পাড়ার বাসিন্দা। গত বছরের ৪ আগস্ট একমাত্র সন্তান মিথির বিয়ে দেন তিনি। স্বামী রায়হানুল ইসলাম রায়হান কাজ করেন ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সে।

মিথি সান্তাহার হার্ভে সরকারি বালিকা বিদ্যালয় থেকে ২০০৯ সালে এসএসসি পাস করে। পরে ঢাকায় গিয়ে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি থেকে বিবিএ সম্পন্ন করেন। বিয়ের পর হেরিটেজ এয়ার এক্সপ্রেস নামের একটি ট্যুরিজম কোম্পানিতে যোগ দেন মিথি। এই নবদম্পতি থাকতেন ঢাকার মিরপুরে এক ভাড়ার বাসায়।

মিথির চাচা সরদার মো. সালাউদ্দিন জানান, ঢাকার বনানীতে কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউয়ের এফ আর টাওয়ারের দশম তলায় ছিল মিথির কর্মস্থল। গতকাল ওই টাওয়ারে আগুন লাগলে অন্যদের সঙ্গে মিথিও আটকে পড়েন ভবনটিতে। আটকে থাকা অবস্থাতেই তিনি ফোনে বিষয়টি জানান তার বাবাকে। মেয়ের বিপদ জেনেই বাবা ছুটে যান ঢাকায়। সেখানে পৌঁছে তিনি জানতে পারেন, ওই ভবনের আগুনে ঝলসে গেছে মিথির শরীর, এ কারণে তাকে কুর্মিটোলা হাসপাতালে পাঠিয়েছে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা। ওই হাসপাতালে গিয়ে তিনি জানতে পারেন, সেখানে নেওয়ার কিছু পরেই মারা গেছেন মিথি। পরে তার পরিচয়পত্র দেখে মরদেহ শনাক্ত করা হলে কর্তৃপক্ষ লাশ হস্তান্তর করে।

hostseba.com
আপনার মতামত দিন
bbc-news-24-ads

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team