বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১২:১৮ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
ব্রেকিং নিউজ :
জাপানে এখনও বিরাজ করছে টাইফুনের প্রভাব,নিহত বেড়ে ৭৪ সড়ক ব্যবহারে সচেতন হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর। কাশ্মীরে বন্ধ মোবাইল এসএমএস সেবা যুক্তরাষ্ট্রের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছেন তুরস্ক। অনুষ্ঠিত হল আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা ’ফ্লোরিডা ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড এন্ড কালচারাল এক্সপো ২০১৯’। পাসপোর্টে পুলিশি ভেরিফিকেশন কেন? জলবায়ু তহবিল গঠনে আন্তর্জাতিক তহবিল গঠন করা জরুরি-ডেপুটি স্পিকার রাঙ্গামাটির বরকল উপজেলার ভুষনছড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক এবং সাধারন সম্পাদক আবু সাইদ লাখো মানুষের মন জয় করে ৩ বছরে পদার্পণ করল দৈনিক আলোকিত সকাল রোহিঙ্গা ইস্যুতে ত্রি-দেশীয় সম্মেলনে যোগদান করতে ৮ দিনের সফরে ভারত যাচ্ছেন সাংবাদিক এইচএম নজরুল
জীবনের প্রথম ভোট, ডিজিটাল বাংলাদেশের সাক্ষী হলাম

জীবনের প্রথম ভোট, ডিজিটাল বাংলাদেশের সাক্ষী হলাম

জীবনের প্রথম ভোট, ডিজিটাল বাংলাদেশের সাক্ষী হলাম
জীবনের প্রথম ভোট, ডিজিটাল বাংলাদেশের সাক্ষী হলাম
Advertisements

বিবিসিনিউজ২৪,ডেস্কঃ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তরুণ ভোটারদের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়। বেশ উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে তারা নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। রাজধানীর কয়েকটি কেন্দ্রে গিয়ে তরুণ ভোটারদের সঙ্গে কথা হয় আমাদের সময়ের সংবাদকর্মীদের। মালিহা সুলতানা ওহী, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী : মোহাম্মদপুরের আলহাজ মকবুল হোসেন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ কেন্দ্রে ভোট দেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী মালিহা সুলতানা ওহী।

নিজের অভিজ্ঞা নিয়ে বলেন, ‘জীবনের প্রথম ভোট, তা-ও আবার ডিজিটাল বাংলাদেশের অনবদ্য সাক্ষী ইভিএমে দিয়েছি। তাই নিজেকে সত্যিই ভাগ্যবান মনে হচ্ছে। ভোট নিয়ে শনিবার থেকেই একটা উত্তেজনা কাজ করছিল। মনে হচ্ছিল পরদিন কোনো উৎসব বা অন্য কোনো পরিবেশে যাচ্ছি। সকাল সকালই ভোটকেন্দ্রে গিয়ে উপস্থিত হই। ছোট লাইন থাকলেও খুব সহজেই দ্রুত ইভিএমে কাক্সিক্ষত প্রার্থীকে ভোট দিতে পেরেছি। প্রথাগত ভোটের চেয়ে এটি সহজ ও দ্রুত সময়ে দেওয়া যায়।

আসলে নতুন কিছুর সাক্ষী হতে সব সময় ভালো লাগে। আশা করি আগামীতে সব আসনেই ইভিএমের মাধ্যমে ভোট হবে।’ রিনা আক্তার, কলেজ শিক্ষার্থী : খুবই আগ্রহ নিয়ে পুরান ঢাকার নারিন্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট দিতে আসেন রিনা আক্তার। এ সময় তাকে বেশ উৎফুল্ল দেখাচ্ছিল। প্রথম ভোট দিলেন, কেমন লাগছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বোঝার আগেই ভোট শেষ। বুথে প্রবেশের পর পছন্দের প্রার্থীর বোতামে টিপতেই আমাকে বলা হলো আপনার ভোট হয়ে গেছে। কিছুই বুঝে উঠতে পারিনি। তাই কিছুক্ষণ নির্বাক তাকিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলাম।’ আবীর রহমান, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা : বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দনিয়ার একে হাইস্কুলে ভোট দেন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আবীর রহমান। এবারই প্রথম ভোট দিলেন তিনি।

বললেন, ‘নতুন এক অনূভূতি, ভালোই লাগছে।’ কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়েছে কিনা জানতে চাইলে উল্টো প্রশ্ন ছুড়ে বললেন, ‘আমি এলাকার ছেলে। কে ঝামেলা করবে? ভেতরে-বাইরে কী হয়েছে জানি না। তবে আমি সুন্দরভাবেই ভোট দিয়েছি।’ আঞ্জুমান আক্তার, সরকারি কবি নজরুল কলেজের শিক্ষার্থী : ঢাকা-৫ আসনের শনির আখড়ার গোবিন্দপুর এলাকার অ্যাডুএইড কিন্ডারগার্টেন স্কুলকেন্দ্রে ভোট দেন আঞ্জুমান আক্তার। এটাই তার প্রথম ভোট দেওয়া।

তাই অনুভূতি জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আগে ভোটকেন্দ্রে আসতাম দর্শক হয়ে। এবার ভোট দিলাম। তবে লোকমুখে শুনেছিলাম, গ-গোল হতে পারে তাই একটু ভয়েই ছিলাম। কিন্তু সহজে ভোট দিতে পেরে খুব ভালো লাগছে।’ একটু মজা করেই প্রশ্ন করা হলো কাকে ভোট দিলেন? একগাল হেসে এই কলেজছাত্রী বলেন, ‘এটা তো বলা যাবে না। তবে যাকে ভোট দিয়েছি তার প্রতি শুভকামনা রইল।’

hostseba.com


আপনার মতামত দিন
bbc-news-24-ads

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team