রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৮:০৬ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
ব্রেকিং নিউজ :
খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় আঞ্চলিক সংগঠন (ইউপিডিএফ) প্রসিত গ্রুপ, কে নিষিদ্ধ করার দাবিতে  মানববন্ধন সাঁথিয়া সরকারি হাই স্কুলে প্রশ্নপত্র না থাকায় নির্বাচনী পরীক্ষা দিতে পারেনি ১৮৯জন শিক্ষার্থী ইনানী মেরিন ড্রাইভ সড়কে অজ্ঞাত এক যুবকের লাশ উদ্ধার অভিভাবক সংগঠনঃ সম্মিলিত সামাজিক উন্নয়ন পরিষদের ১ম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠিত কেশবপুরে মহাকবি মাইকেল মধুসূদন গোল্ডকাপ ফুটবল উদ্বোধন শিক্ষকতায় শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন চট্টগ্রাম জেলা যুব কমিটির বিশাল মিছিল সম্রাটের অনুষ্ঠানে যোগ দাওয়ার উদ্দেশে জাপান যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি যুবলীগের সম্মেলন: বিভিন্ন পদে দেখা যেতে পারে নতুন মুখ বাজার থেকে তুলে নিচ্ছে বেবি পাউডার জনসন অ্যান্ড জনসন
ছাগলকে ঢিল ছোঁড়াকে কেন্দ্র করে ১০ জনকে কুপিয়ে জখম

ছাগলকে ঢিল ছোঁড়াকে কেন্দ্র করে ১০ জনকে কুপিয়ে জখম

Advertisements

বিবিসিনিউজ২৪,ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ফসল খাওয়ার সময় ছাগলকে ঢিল ছুঁড়ে তাড়িয়ে দেওয়াকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট সংঘর্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন।  

সোমবার দুপুরে উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের লক্ষিবরদী গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। 

আহতদের ঢাকা পঙ্গু হাসাপাতাল ও সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন স্বজনরা। এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। 

পুলিশ জানায়, রোববার বিকেলে গ্রামের আমিন উদ্দিনের জমিতে লাগানো কালাই খাচ্ছিল পার্শ্ববর্তী ইদ্রিস আলীর একটি ছাগল।

এ সময় আমিন উদ্দিনের স্ত্রী রোকসানা একটি ঢিল ছুঁড়ে ছাগলটিকে তাড়িয়ে দেন। এ নিয়ে ইদ্রিস আলী ও রোকসানার মধ্যে তর্কবিতর্ক হয়। পরে ইদ্রিস আলী রোকসানা ও তার প্রতিবন্ধী দুই মেয়েকে পিটিয়ে আহত করেন। 

hostseba.com

স্থানীয়রা জানান, এ ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইউসুফ দেওয়ান সকালে ওই বাড়িতে গিয়ে রোকসানাকে চিকিৎসার অর্থ দেন ও ইদ্রিস আলীকে এ ঘটনায় বাড়াবাড়ি না করার অনুরোধ করেন।

কিন্তু চেয়ারম্যান চলে আসার পর বেলা ১১ টার দিকে ইদ্রিস আলীর নেতৃত্বে রুহুল আমিন, আবুল হোসেন, সেলিম মিয়া, ইমরান, রুবিয়াসহ ১২-১৫জনের একটি দল রাম দা, টেঁটা, বল্লম ও লোহার রড নিয়ে আবারও রোকসানার বাড়িতে হামলা চালান।

পরে চেয়ারম্যানের নির্দেশে স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম ইদ্রিস আলীকে শাসন করতে যান। এ সময় ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম, পনির হোসেন, নয়ন, নিরব ও জুয়েলসহ ১০জনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করা হয়।

তাদের ঢাকা পঙ্গু হাসাপাতাল ও সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে পনির ভূইয়ার অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ ঘটনায় পুলিশ ইদ্রিস আলীকে আটক করেছে।  

নোয়াগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইউসুফ দেওয়ান জানান, রোকসানা খুবই অসহায় একজন নারী। তার পরিবার খুবই দরিদ্র। তার পরিবারে দুজন প্রতিবন্ধী রয়েছে। বিভিন্ন সময় আমি তাদের খোঁজখবর নেই। তাদের ওপর হামলার খবর পেয়ে আমি সকালে গিয়ে চিকিৎসার জন্য অর্থ সহযোগিতা দিয়ে এ পরিবাররের উপর জুলুম না করার অনুরোধ করে আসার পর ইদ্রিস আলী আবারও হামলা করেন। 

নোয়াগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাতেন জানান, ইদ্রিস আলীর পরিবার এলাকায় খুবই খারাপ প্রকৃতির বলে পরিচিত। কারণে-অকারণে মানুষকে তারা নির্যাতন করেন। 

তবে পুলিশের হাতে আটক ইদ্রিস আলী বলেন, আমাকে রোকসানা মারধর করেছে। এ বিষয়টি আমার ছেলেরা মেনে নিতে পারেনি। 

সোনারগাঁ থানার ওসি মোরশেদ আলম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। একজনকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। 

আপনার মতামত দিন
bbc-news-24-ads

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team