রবিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২০, ০৫:৪৬ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের নিউজে আপনাকে স্বাগতম... আপনি ও চাইলে আমাদের পরিবারের একজন হতে পারেন । আজই যোগাযোগ করুন ।
ব্রেকিং নিউজ :
ট্যুরিস্ট অফ চিটাগং এর রাঙ্গামাটি ভ্রমণ সম্পন্ন চট্টগ্রামে বিমান বন্দরে যাত্রীর পেট থেকে ৮ টি স্বর্ণের বার উদ্ধার যাদের মধ্যে মানবিক মূল্যবোধ কাজ করে তারাই প্রকৃত মানুষ-চসিক মেয়র নাগরপুরে সজল সিকদার এর প্রতারনা ও ধর্ষনের প্রতিবাদে মানববন্ধন ঝালকাঠি রিপোর্টার্স ইউনিটির কমিটি গঠন সভাপতি আল আমিন সম্পাদক মান্নান যশোরের নাভারন রেলস্টেশন থেকে স্বর্ণ উদ্ধার অভিযোগ গ্রহণের পরও বহাল চেয়ারম্যান আবুল কালাম ! চুনতি সূফিনগর যুব ঐক্য পরিষদের ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা সম্পন্ন গোলপাহাড় “বঙ্গবন্ধু রৌপকাপ শর্টপিচ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত শেখেরখীল ফাঁড়িরমূখ বেইলী ব্রীজের বেহাল দশা, দুই ইউনিয়নের যোগাযোগ হুমকির পথে
চলাচলের অযোগ্য নোয়াপাড়া আমানত উল্ল্যাহ সড়ক,দেখার কেউ নেই?

চলাচলের অযোগ্য নোয়াপাড়া আমানত উল্ল্যাহ সড়ক,দেখার কেউ নেই?

চলাচলের অযোগ্য নোয়াপাড়া আমানত উল্ল্যাহ সড়ক,দেখার কেই নেই
চলাচলের অযোগ্য নোয়াপাড়া আমানত উল্ল্যাহ সড়ক,দেখার কেই নেই
Advertisements

কাজী মারুফ,চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ

মাত্র পনের মিনিটের বৃষ্টিতে হাঁটু পানিতে তলিয়ে যায় নগরীর ৯ নম্বর উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ডের আওতাধীনআমানত উল্লাহ রোডের এক চতুর্থাংশ এলাকাগতকাল সোমবার ভোররাত থেকে পড়া বৃষ্টির কারণে ‘নোয়াপাড়া’ ও ‘আবদুল আলী নগর’ নামের দুটি গ্রামেরঅন্তত অর্ধশতাধিক বাড়ির নিচতলা পানিতে ডুবে ছিল রাত পর্যন্ত। রাস্তায় পড়ে ছিল আবর্জনার স্তূপ।

আগেরদিন যারা এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করেছেন, তারাও গতকাল বৃষ্টির পর রাস্তাটিকে চিনতে পারছিলেন না  নালাছাড়িয়ে  আবর্জনা ও কাদা রাস্তাটিতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকায় এলাকাবাসী আমানত উল্লাহ রোডটি ‘রাস্তা’ না‘নালা’ সেই দ্বন্দ্বে পড়ে যানবৃষ্টির পর রোদ ওঠায় পুরো এলাকায় আবর্জনার উৎকট গন্ধে অসহনীয় একঅবস্থার সৃষ্টি হয়। যে কারণে দিনভর এলাকাবাসী ঘরের জানালা খুলতে পারেননি।

 চলাচলের অযোগ্য নোয়াপাড়া আমানত উল্ল্যাহ সড়ক,দেখার কেই নেই

চলাচলের অযোগ্য নোয়াপাড়া আমানত উল্ল্যাহ সড়ক,দেখার কেই নেই

নোয়াপাড়া সমাজ উন্নয়ন পরিষদের প্রধান সমাজপতি মো. শাহজাহান চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, নেছারিয়া থেকে অলংকার সিডিএ মার্কেটমুখী সড়কটির নাম হলো আমানত উল্লাহ রোডএই রোডেরমাঝখানের একটি অংশ দিয়ে বয়ে যাওয়া উত্তর পাহাড়তলী খালটি (স্থানীয় বাসিন্দাদের ভাষায় নোয়াপাড়া বড়নালা) ভরাট হয়ে যাওয়ায় সামান্য বৃষ্টিতেই নালার আবর্জনামিশ্রিত পানি রাস্তায় ওঠে যায়।

একইসঙ্গে রাস্তাটিকঠিন বর্জ্যে সয়লাব হয়ে যায় তখন পায়ে হেঁটে ওই রাস্তায় চলাচল করাও কষ্টকর হয়ে পড়েশাহজাহান চৌধুরী ক্ষোভপ্রকাশ করে বলেন, ভরাট হয়ে যাওয়া এই খালটি এই এলাকার দুটি গ্রাম ‘নোয়াপাড়া’ ও‘আবদুল আলী নগর’র জন্য দুঃখের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

 দুর্ভোগ সইতে না পেরে ৫/৬ মাস আগে এই দুর্গতিরপ্রতিকার চেয়ে স্থানীয় কাউন্সিলরের মাধ্যমে সিটি মেয়রকে নোয়াপাড়া সমাজ উন্নয়ন পরিষদের পক্ষ থেকেএকটি চিঠি দেয়া হয়েছে ।এরপর সমাজের পক্ষ থেকে সরাসরি মেয়রের সঙ্গে দেখা করে আবারও খালটির(নোয়াপাড়া বড় নালা) কঠিন বর্জ্য অপসারণের মাধ্যমে এলাকাবাসীকে দুর্ভোগের হাত থেকে রক্ষা করারআবেদন জানাই। কিন্তু এখন পর্যন্ত সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। সামান্য বৃষ্টিতেইআমানত উল্লাহ সড়ক কাদা পানি আর আবর্জনায় একাকার হয়ে যায়।

 চলাচলের অযোগ্য নোয়াপাড়া আমানত উল্ল্যাহ সড়ক,দেখার কেই নেই

চলাচলের অযোগ্য নোয়াপাড়া আমানত উল্ল্যাহ সড়ক,দেখার কেই নেই

মোহাম্মদ আলী নামে অপর এক বাসিন্দা বলেন, গতকালের (সোমবার) বৃষ্টিতে এলাকায় এই বছরের মধ্যেসবচেয়ে বেশি দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়। আগে ৫/৬ ঘণ্টার মধ্যে পানি নেমে গেলেও গতকালের বৃষ্টিতে অর্ধশতাধিকঘরবাড়ির নিচতলা নালার পানিতে ডুবে ছিল রাত পর্যন্ত। বিশ্রি গন্ধে এলাকার বাতাস দূষিত হয়ে পড়ে। ঘরেরজানালা বন্ধ করে রাখতে হয়েছে এলাকাবাসীকে।

hostseba.com

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার এক বাসিন্দা বলেন, গত ৩ বছর ধরে নালার পানির দুর্ভোগে আছি। নালাটিনিয়মিত পরিস্কার করা হয় না। স্থানীয় কাউন্সিলরকে জানালে তিনি নালার (উত্তর পাহাড়তলী খাল) উপরিভাগের ময়লা অপসারণ করার ব্যবস্থা করেই দায় সারেন। কিন্তু ভরাট নালাটি পরিস্কারের উদ্যোগ নেননা। এতে করে অল্প বৃষ্টিতেই পানি ঘরে ওঠে যায়।

 

এলাকাবাসীর স্থায়ী দুর্ভোগ লাঘবে বিহারী কলোনির পাশেররেলের অংশ থেকে অলংকার এলাকায় বন্দরগাঁ পর্যন্ত উত্তর পাহাড়তলীর খালটি কঠিন বর্জ্য অপসারণ করতেহবে। অন্যথায় এই সমস্যার সমাধান হবে না।
জানতে চাইলে উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. জহুরুল আলম জসিম দুর্ভোগের কথা স্বীকার করেবলেন, ‘খবর পেলেই আমি নালা পরিস্কারের ব্যবস্থা করি।

গতকালও খবর পেয়ে মেয়র মহোদয়কে সঙ্গে নিয়েনোয়াপাড়া এলাকা পরিদর্শন করেছি। আগামীকাল (মঙ্গলবার) সকাল থেকেই এস্কেভেটরের মাধ্যমে নালা (উত্তরপাহাড়তলী খাল) থেকে কঠিন বর্জ্য উত্তোলনের কাজ শুরু করবো।’

আপনার মতামত দিন

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Advertisements

Comments are closed.

Advertisements

অনলাইন ভোটে অংশগ্রহন করুন




Advertisements

Our English Site

© All rights reserved © 2017-27 Bbcnews24.com.bd
Theme Developed BY ANI TV Team