সরকার জনগণের স্বার্থ ও সম্পদের মালিকানা নিশ্চিত করে জ্বালানীক্ষেত্রের সুষ্ঠু ও সঠিক ব্যবহারে ব্যর্থ

0
144
সরকার জ্বালানীক্ষেত্রের সুষ্ঠু ও সঠিক ব্যবহারে ব্যর্থ BBCNEWS24
সরকার জ্বালানীক্ষেত্রের সুষ্ঠু ও সঠিক ব্যবহারে ব্যর্থ BBCNEWS24

সরকার জ্বালানীক্ষেত্রের সুষ্ঠু ও সঠিক ব্যবহারে ব্যর্থ

মুহাম্মদ আবু নাছরে,চট্টগ্রামঃ তেল গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির চট্টগ্রাম জেলার উদ্যাগে সুন্দরবন ও বিদ্যুৎ সংকট সমাধান বিকল্প রুপরেখা শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।গতকাল শুক্রবার বিকেলে নগরীর চেরাগী পাহাড়স্থ সুপ্রভাত স্টুডিও হলে সংগঠনের আহ্বায়ক কবি ও সাংবাদিক আবুল মোমেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন তল গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, বক্তব্য রাখেন সংগঠনের জেলা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট জানে আলম, যুগ্ম আহ্বায়ক প্রকৌশলী সুভাষ বড়–য়া, বাসদ চট্টগ্রাম জেলা সমন্বয়ক কমরেড মহিন উদ্দীন, সিপিবি জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য অমৃত বড়–য়া,গণমুক্তি জেলার সভাপতি রাজা মিয়া, গণসংহৃতি আন্দোলন চট্টগ্রাম জেলার সমন্বয়কারী হাসান মারুফ রুমি, বাসদ নেতা শফিউল্লাহ আবিদ, অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জাতীয় কমিটির সদস্য রাহাতুল্লাহ রিপাত। আলোচনা সভার শুরুতে বাংলাদেশ জ্বালানী ও বিদ্যুৎ মহাপরিকল্পনা ২০১৭-২০৪১ জাতীয় কমিটির প্রস্তাবিত খসড়া রুপরেখা উপস্থাপন করেন প্রকৌশলী মাহবুব সমন। এছাড়া বাসদ, সিপিবি, ছাত্র, নারীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক এবং পেশাজীবী সংগঠনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
আলোচনা সভায় আনু মুহম্মদ বলেন, সরকার জনগণের স্বার্থ ও সম্পদের মালিকানা নিশ্চিত করে জ্বালানীক্ষেত্রের সুষ্ঠু ও সঠিক ব্যবহারে ব্যর্থ হয়েছে। বহুজাতিক কোম্পানিগুলোর লুটপাট, বিনিয়োগ এবং সংশ্লিষ্ট দূর্নীতিবাজ আমলাও কর্মকর্তাদের মুনাফা নিশ্চিত করে এই ভুলনীতি ও দূর্নীতির আশ্রয় নিয়েছে।জাতীয় কমিটির পক্ষ থেকে আমরা সরকার ও জনগণের সামনে ২০৪১ সাল পর্যন্ত বিকল্প জ্বালনী নীতি ও তার ব্যবহারে প্রস্তাব করেছি। এতে নবায়নযোগ্য জ্বালানী সহ বিদ্যুতের সর্বনিম্ন দাম নিশ্চিত করা হয়েছে।গ্যাস,তেল, কয়লার ব্যবহার কমিয়ে নবায়নযোগ্য জ্বালানির প্রস্তাব করা হয়েছে যা পৃথিবীর উন্নত দেশগুলোতেও ব্যবহৃত হচ্ছে।অথচ সরকার রামপালে বিদ্যুকেন্দ্র স্থাপনের মাধ্যমে সুন্দরবন ধ্বংসের মতো প্রান-প্রকৃতিবিনাশী পদক্ষেপ নিয়েছে।”তিনি এই প্রস্তাবিত মহাপরিল্পনা গ্রহণ করে বাংলাদেশের জ্বালানি ও বিদ্যুতক্ষেত্রের সঠিক ব্যবস্থাপনার আহবান জানান। ১৫-০৯-২০১৭।