বরিশালে চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্ঠা – আত্মগোপনে শিক্ষক

0
265
বরিশালে চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্ঠা - আত্মগোপনে শিক্ষক - BBCNEWS24
বরিশালে চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্ঠা - আত্মগোপনে শিক্ষক - BBCNEWS24

বরিশালে চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্ঠা – আত্মগোপনে শিক্ষক

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল : বেশি সময় প্রাইভেট পড়ানোর কথা বলে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ক্লাশ রুমে বসে চতুর্থ শ্রেনীতে পড়–য়া এক ছাত্রীকে (১০) ধর্ষণের চেষ্টার বিষয়টি ধামাচাঁপা দেয়ার জন্য থানা পুলিশকে ম্যানেজ করে পুরো বিষয়টি ধামাচাঁপা দেয়ার জন্য স্থানীয় প্রভাবশালী একটি মহল মরিয়া হয়ে উঠেছে। ঘটনার পর থেকে আত্মগোপন করেছেন অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষক আব্দুল লতিফ খান। মঙ্গলবার সকালে বিষয়টি সর্বত্র ছড়িয়ে পরলে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়েছে। ঘটনাটি জেলার গৌরনদী উপজেলার বাঘমারা বড়দুলালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের। ওই ছাত্রীর মা অভিযোগ করেন, তার মেয়ে ওই স্কুলের চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্রী তার সহপাঠীকে সাথে নিয়ে বিদ্যালয়ের ক্লাশ রুমে প্রতিদিন সকালে সহকারী শিক্ষক লতিফ খানের কাছে প্রাইভেট পড়ে আসছিলো। সোমবার বেলা ১১টার দিকে প্রাইভেট পড়ানোর শেষেরদিকে ওই শিক্ষক চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী প্রিয়াকে বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়ে আরও পড়ানোর কথা বলে তার মেয়েকে থাকতে বলে। প্রিয়া চলে যাবার পর শিক্ষক লতিফ খান তার মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এসময় ওই ছাত্রীর ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে শিক্ষক লতিফ খান পালিয়ে যায়। শিক্ষক লতিফ খান বড়দুলালী গ্রামের বশির খানের পুত্র। ঘটনার পর থেকে সে নিজ এলাকা ছেড়ে আত্মগোপন করেছেন। সূত্রে আরও জানা গেছে, এ ঘটনায় ওইদিন রাতে গৌরনদী থানায় মামলা দায়ের করতে গেলে স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালীরা থানা পুলিশকে ম্যানেজ করে পুরো ঘটনাটি মীমাংসার কথা বলে ছাত্রীর পরিবারকে নিয়ে যায়। থানা পুলিশকে ম্যানেজের অভিযোগ অস্বীকার করে গৌরনদী মডেল থানার ওসি মনিরুল ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে তিনি কিছুই জানেন না। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।