পঞ্চগড়ে গরু খেয়ে ফেলল দেড় লক্ষ টাকা্র পান

0
112
পঞ্চগড়ে গরু খেয়ে ফেলল দেড় লক্ষ টাকা্র পান BBCNEWS24
পঞ্চগড়ে গরু খেয়ে ফেলল দেড় লক্ষ টাকা্র পান BBCNEWS24

পঞ্চগড়ে গরু খেয়ে ফেলল

দেড় লক্ষ টাকা্র পান

মু. আবু নাঈম, পঞ্চগড় প্রতিনিধি: পঞ্চগড়ে রমজান আলী নামে এক পান ব্যবসায়ীর হালখাতায় আদায় কৃত ১লাখ ১৫ হাজার টাকা খেয়ে ফেলেছে তার নিজের গৃহ পালিত গরু। টাকার শোকে রমজান আলী হতাশ হয়ে পাগল প্রায়। এ ঘটনার পর এলাকা বাসীর মধ্যে এক অন্যরকম চাঞ্চল্যকর পরিবেশের সৃষ্টি হয়। রমজান জানায়, গত বুধবার তার পানের দোকানের হালখাতা শেষে রাতে বাড়ী ফিরে জেকেটের পকেটে ১লাখ ১৫ হাজার টাকা বিছানার পাশে ঝুলিয়ে রেখে ঘুমিয়ে পড়ি।

চুরীর ভয়ে দীর্ঘ দিন থেকে শোবার ঘড়ে গৃহ পালিত গরুটি রেখে আসছিলাম। সে দিন সকালে ঘুম থেকে উঠে জেকেটের নিচে একটা এক হাজার টাকার নোট পড়ে আছে, গরুটি কি জানি চাবাচ্ছে। মুহুর্তে গরুটি পড়ে থাকা টাকাটি মুখে নিয়ে চাবাতে থাকে। আমি দ্রুত জোরপুর্বক টাকাটা মুখ হতে বের করে নেই। এবং আমার জেকেটের পকেটে রাখা টাকা গুলো হাত দিলে দেখি টাকা নেই। এ সময় রমজান চিৎকার করতে থাকলে বাড়ির লোকজন ও এলাকা বাসী এসে জানতে পারে টাকা নেই, গরু খেয়েছে। উপস্থিত অনেকেই টাকা গুলো খোজা খুজি করতে থাকে।

এবং ঘড়ে চুরি হয়েছে কিনা সেটি দেখতে থাকে। টাকা গরু খেয়ে ফেলার বিষয়টি সকলেই মানতে নারাজ। এলাকাবাসী মনে ধারণা করে করছিল রমজান তার মহাজনদের দেনার টাকা না মেটানোর জন্য এই ঘটনাটি সাজিয়েছে। তাই এ সব টাকা খেয়েছে কি না নিশ্চিত হতে সকলের সামনে আবার জাকেটের পকেটে নতুন করে আবার ৬/৭ শত টাকা রাখলে গরুটি আবার এ সব টাকা খেয়ে ফেলে। টাকার শোকে রমজান আলী হতাশ হয়ে জ্ঞান হারীয়ে ফেল্লে দ্রুত তাকে পঞ্চগড় সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার পর এলাকাবাসী রমজানকে গরুটি জবাই করে টাকা বাহির করতে বলে।

তাৎথনিক এলাকার কশাই এবং পশু চিকিৎসকে ডেকে এনে বিষয়টি জানান। তারা জানিয়েছে টাকার মধ্যে এক ধরনের লবনাত্য সাদ থাকায় গরু টাকা গুলো খেয়েছে। তাই রাতের কখন কার ঘটনা তা না জেনে গরু জবাই করে লাভ নাই। টাকা ফেরত পাওয়া যাবেনা। গরুটিকে জবাই করতে পশু ডাক্তার ও কশাই নিষেদ করেছে। জানাগেছে গরুটির বর্তমান বাজার মুল্য প্রায় সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা হবে। পান দোকানি রমজান আলী পঞ্চগড় সদর উপজেলার জগদল সর্দারপাড়া গ্রামের মৃত লুলু মেহাম্মদের ছেলে। সে দীর্ঘদিন থেকে জগদল বাজারে পানের দোকান করে আসছে।