ছাত্রসেনার চন্দনাইশ উপজেলা টিটিসি সম্পন্ন

0
321
ছাত্রসেনার চন্দনাইশ উপজেলা টিটিসি সম্পন্ন
ছাত্রসেনার চন্দনাইশ উপজেলা টিটিসি সম্পন্ন

ছাত্রসেনার চন্দনাইশ উপজেলা টিটিসি সম্পন্ন

BBCNEWS24-BBCNEWS24.COM.BD
BBC NEWS 24 – BBCNEWS24 LOGO

মুহাম্মদ আবু নাছের, বিবিসিনিউজ২৪: বর্তমানে দেশে রাজনৈতিক সন্ত্রাসের মূল কারণ নেতাদের মধ্যে নৈতিকতা নাই আজ ২৫ সেপ্টেম্বর সকাল ৮ টায় বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা চন্দনাইশ উপজেলার থানার ট্রেনিং ক্যাম্প (টিটিসি) জোয়ারা ইসলামিয়া ফাযিল ডিগ্রি মাদ্রাসার মিলনায়তনে সংগঠনের সভাপতি ছাত্রনেতা মুহাম্মদ শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় প্রচার সচিব মাওলানা মুহাম্মদ রেজাউল করিম তালুকদার। প্রধান প্রশিক্ষক হিসেবে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন যুব নেতা আলহাজ্ব মাওলানা আকতার হোসেন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল হাকিম, আলমগীর ইসলাম বঈদী, যুবনেতা মাওলানা মুহাম্মদ মামুন উদ্দিন ছিদ্দিকী, যুবনেতা মুহাম্মদ মহিউদ্দিন, ছাত্রনেতা জিএম শাহাদাত হোসাইন মানিক, ছাত্রনেতা মুহাম্মদ নুরুল্লাহ রায়হান খাঁন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাওলানা রেজাউল করিম তালুকদার বলেন, নেতৃত্ব একটি মহান দায়িত্ব। ইসলামী সংগঠনে নেতা হচ্ছে জনগণের খাদেম। তাই নেতাকে লৌকিকতা বর্জন করতে হবে, এখলাস বা নিষ্ঠার মাধ্যমে দায়িত্ব পালন করতে হবে। তিনি বলেন, বর্তমানে দেশে রাজনৈতিক সন্ত্রাসের মূল কারণ নেতাদের মধ্যে নৈতিকতা নাই। ব্যক্তি ভিত্তিক অনুসারী গড়ে তুলে সংগঠনের চেয়ে নিজে বড় প্রচার করার প্রয়াস পায়। যা সংগঠন, দেশ, জাতি সর্বোপরি রাষ্ট্রের জন্য অশুভ। বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা বর্তমানে প্রচলিত শিক্ষা ব্যবস্থার পাশাপাশি একটি ব্যতিক্রমী পাঠশালা। ছাত্রসেনার কর্মনীতি ও গঠনতন্ত্র অনুযায়ী প্রত্যেক কর্মীকে সমর্থক, অনুগামী, সহগামী ও সভ্য এ চারটি স্তরে নির্দিষ্ট সিলেবাস অনুযায়ী জাতীয়-আন্তর্জাতিক, সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় বিভিন্ন বিষয়ে অনুশীলন করে পরীক্ষার মাধ্যমে উন্নীত হন। তাই বর্তমানে রাজনৈতিক সন্ত্রাস ও শিক্ষাঙ্গণে অসুস্থ রাজনীতি চর্চা বন্ধে ছাত্রসেনার বিকল্প নাই। মুহাম্মদ শাহ নেওয়াজ ও মুহাম্মদ সাকিফুল ইসলাম সাকিবের যৌথ সঞ্চালনায় প্রশিক্ষণ প্রদান করেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা নুরুল ইসলাম হিরু। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন, জেলার সহ-সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা মুহাম্মদ কামরুল ইসলাম। এতে আরও বক্তব্য রাখেন, ছাত্রনেতা মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম, হাফেজ মুহাম্মদ আব্দুল কাদের, মুহাম্মদ ওসমান শাহাদাত, মুহাম্মদ আরাফাত হোসাইন, মুহাম্মদ আব্দুল মোবিন, মুহাম্মদ আব্দুল আজিজ, নুর মোহাম্মদ হিরু, মুহাম্মদ শামসুদ্দীন খোকন, মুহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন, মুহাম্মদ ইয়াছিন আরাফাত, মারুফুল ইসলাম, নুর কাদের, সেকান্দর ইসলাম, জাকের হোসাইন, সরওয়ার হোসাইন প্রমুখ।