খাগড়াছড়িতে ছাত্রলীগ কর্মী খুন !

0
58
পুলিশ সূত্র জানায়, শনিবার সন্ধ্যায় কয়েক বন্ধু মিলনপুর ব্রিজে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন। সন্ধ্যা ৭টার দিকে ৮ থেকে ১০ সন্ত্রাসী এসে রাসেলকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়।
পুলিশ সূত্র জানায়, শনিবার সন্ধ্যায় কয়েক বন্ধু মিলনপুর ব্রিজে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন। সন্ধ্যা ৭টার দিকে ৮ থেকে ১০ সন্ত্রাসী এসে রাসেলকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়।

খাগড়াছড়িতে ছাত্রলীগ

কর্মী খুন

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধিঃ খাগড়াছড়িতে শহরের মিলনপুর এলাকায় শনিবার সন্ধ্যায় ছাত্রলীগকর্মী রাসেলকে (২০) কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনার জন্য আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপ একে অপরকে দায়ী করে গতকাল রবিবার সকালে জেলা শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

এ নিয়ে শহরে তীব্র উত্তেজনা বিরাজ করছে। সকালে সাংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা গ্রুপের অনুসারীরা বিক্ষোভ মিছিল করে পৌর মেয়র রফিকুল আলম ও তার ভাই জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদবিষয়ক সম্পাদক দিদারুল আলমকে রাসেল হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত বলে দায়ী করেন। তারা ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তার করতে প্রশাসনকে আলটিমেটাম দেন। অন্যদিকে বিকালে পৌর মেয়রের অনুসারীরা বিক্ষোভ মিছিল করে রাসেল হত্যার জন্য সাংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরাকে দায়ী করে বলেন, শান্ত পরিবেশকে অশান্ত করে প্রকৃত আসামিদের ছায়া দিয়ে রেখে উল্টো পৌর মেয়রকে দোষারোপ করা হচ্ছে।

পুলিশ সূত্র জানায়, শনিবার সন্ধ্যায় কয়েক বন্ধু মিলনপুর ব্রিজে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন। সন্ধ্যা ৭টার দিকে ৮ থেকে ১০ সন্ত্রাসী এসে রাসেলকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়। রাসেল জেলা সদরের কদমতলীর হরিনাথ পাড়ার মো. নুর হোসেনের ছেলে। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।