কলারোয়ায় কাকডাঙ্গা সীমান্তে ৫ বাংলাদেশী নাগরিক হস্তান্তর ও ভারতীয় মালামাল উদ্ধার!

0
37
কলারোয়ায় কাকডাঙ্গা সীমান্তে বাংলাদেশী নাগরিক হস্তান্তর ও ভারতীয় মালামাল উদ্ধার!
কলারোয়ায় কাকডাঙ্গা সীমান্তে বাংলাদেশী নাগরিক হস্তান্তর ও ভারতীয় মালামাল উদ্ধার!

কলারোয়ায় কাকডাঙ্গা সীমান্তে ৫ বাংলাদেশী নাগরিক

হস্তান্তর ও ভারতীয় মালামাল উদ্ধার!

ফিরোজ জোয়ার্দ্দার,সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি: সাতক্ষীরার কলারোয়ায় কাকডাঙ্গা সীমান্তের বিপরীতে ভারতের হাকিমপুর বিএসএফ ক্যাম্পে আটক নারী- পুরুষসহ ৫ বাংলাদেশী নাগরিককে বিজিবি’র নিকট হস্তান্তর করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বিএসএফ। শনিবার বিকালে উপজেলার ভাদিয়ালী ১নং পোষ্ট নামক স্থানে সীমান্তের মেইন পিলার ১৩/৩ এস ৬ আরবী’র নিকট সোনাই নদীর ধারে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তাদেরকে হস্তান্তর করা হয়।

হস্তান্তরকারীরা হলেন পিরোজপুর জেলার স্বরুপকাটি থানার মুনিনাগ গ্রামের মৃত রমেশ চন্দ্র হালদারের স্ত্রী সোনালী হালদার (৪৮), শরিয়াতপুর জেলার নড়িয়া থানার মৃধাকান্দি গ্রামের রশিদ মৃধার মেয়ে মমতাজ বেগম (৩৫), যশোর জেলার কোতয়ালী থানার রামনগর গ্রামের আয়ুব ঢালীর ছেলে লিকসন ঢালী (২৯), একই জেলার শার্শা থানার জামতলা গ্রামের মৃত শাহজালাল সরদারের মেয়ে সাবিনা সরদার (৪০) ও ঝিনাইদাহ জেলার কালিগঞ্চ থানার মহাদেবপুর গ্রামের শ্রীকান্ত বিশ্বাসের ছেলে বকুল বিশ্বাস (৪২)।
পরে তাদের আটক করে বিজিবি থানা পুলিশে সোপার্দ করেন।

এ ব্যাপারে কাকডাঙ্গা ক্যাম্পের ল্যাঃ নায়েক মোস্তফা কামাল বাদী হয়ে থানায় ১৯৭৩ সালের বাংলাদেশ পাসপোর্ট আইনে একটি মামলা নং (২৬) তাং ২৪/৩/১৮ দায়ের করেন এবং আটকদের রোববার জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। অপরদিকে রাতে গাড়াখালী গ্রামের মধ্যে চোরাচালান বিরোধী অভিযান চালিয়ে কাকডাঙ্গা ক্যাম্পের হাবিলদার আকরামের নেতৃত্বে চোরাচালানীদের তাড়া করে ভারতীয় উন্নত মানের ৫ গাইড শাড়ি ও ২বস্তা চা-পাতা উদ্ধার করে। তবে উদ্ধারের সময় কোন চোরাচালানীকে আটক করতে পারেনি বিজিবি। উদ্ধারকৃত শাড়ি ও চা-পাতা সাতক্ষীরা বিজিবি’র হেড কোয়াটারে জমা দেয়া হয়েছে বলে ক্যাম্প সূত্রে জানা যায়।

MAXZIONIT