কক্সবাজার র্যাবের অভিযানে অস্ত্রসহ আটক-৩!

0
66
কক্সবাজার র্যাবের অভিযানে অস্ত্রসহ আটক-৩ BBCNEWS24
কক্সবাজার র্যাবের অভিযানে অস্ত্রসহ আটক-৩ BBCNEWS24

কক্সবাজার র্যাবের অভিযানে

অস্ত্রসহ আটক-৩

ফুয়াদ মোঃ সবুজ কক্সবাজার ব্যুরো :কক্সবাজারে উখিয়া থানাধীন মাছকারিয়া আদর্শ গ্রামে অভিযান চালিয়ে ১০টি ওয়ানশুটার গান, ০১ টি এসবিবিএল, ০৪ টি ধারালো অস্ত্র এবং ০৩ রাউন্ড গুলিসহ ০৩ জন অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীকে আটক করেছে র‌্যাব-৭। গত ২৫ শে মার্চ সকাল সোয়া ৫টার দিকে মেজর মোঃ রুহুল আমিন এর নেতৃত্বে এ অভিযান চালানো হয়। আটককৃতরা হলো, উপজেলার ফলিয়া পাড়া গ্রামের মোঃ আবদু সালামের ছেলে মোঃ জসিম উদ্দিন (৩০), একই এলাকার আবু সামার ছেলে মোঃ নুরুল বশর (৩০) ও মধুরছড়া গ্রামের মৃত আবুল কাশেম এর ছেলে মোঃ আনোয়ার হোসেন (২৮)। পরে তাদেরকে উদ্ধারকৃত অস্ত্র গুলিসহ উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়।

সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া), সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার, মিমতানুর রহমান, বিবিসি নিউজ২৪ কে জানান, র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানাধীন মাছকারিয়া আদর্শ গ্রাম এলাকায় কতিপয় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী সন্ত্রাসী কার্যক্রম ঘটানোর উদ্দেশ্যে অবৈধ অস্ত্রসহ অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে মেজর মোঃ রুহুল আমিন এর নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল বর্ণিত স্থানে অভিযান পরিচালনা করলে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টকালে র‌্যাব সদস্যরা ১। মোঃ জসিম উদ্দিন (৩০), পিতা- মোঃ আব্দুস সালাম, গ্রাম- ফলিয়াপাড়া, ২। মোঃ আনোয়ার হোসেন (২৮), পিতা- মৃত আবুল কাশেম, গ্রাম- মধুরছড়া, ৩। মোঃ নুরুল বশর (৩০), পিতা- আবু সামা, গ্রাম- ফলিয়ারপাড়া, সর্বথানা-উখিয়া, জেলা-কক্সবাজারদের’কে আটক করে।

এসময় আটককৃতদের দেহ এবং বর্ণিত স্থান তল্লাশী করে ১০টি ওয়ান শুটারগান, ০১ টি এসবিবিএল, ০৩ রাউন্ড গুলি, ০৩ টি রামদা, ০১ টি কিরিচ এবং ০৫ রাউন্ড খালি খোসা উদ্ধার করা হয়। উল্লেখ্য যে, গ্রেফতারকৃত আসামীদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন যাবত উক্ত অবৈধ অস্ত্র দিয়ে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ করে আসছিল এবং এলাকায় প্রভাব বিস্তারের জন্য সর্বদা এসব অস্ত্র মজুদ রাখতো।পরে আটককৃতদের ও উদ্ধারকৃত মালামাল পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে দন্ডবিধি ৩৯৯/৪০২ এবং ১৮৭৮ সনের আর্মস এ্যাক্টের ১৯-এ ধারা মোতাবেক কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়।