আবদুল খালেক ইঞ্জিনিয়ারকে জাতীয়ভাবে স্বীকৃতি দিন, তাঁর অবদান অসামান্য

0
286
আবদুল খালেক ইঞ্জিনিয়ারকে জাতীয়ভাবে স্বীকৃতি দিন, তাঁর অবদান অসামান্য
আবদুল খালেক ইঞ্জিনিয়ারকে জাতীয়ভাবে স্বীকৃতি দিন, তাঁর অবদান অসামান্য

আবদুল খালেক ইঞ্জিনিয়ারকে জাতীয়ভাবে স্বীকৃতি দিন, তাঁর অবদান অসামান্য

                                                            –গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ’র স্মরণ সভার দাবি

আজ ২৫ সেপ্টেম্বর , চট্টগ্রামের সংবাদপত্র শিল্পের প্রানপুরুষ এবং শাহেনশাহে সিরিকোট (র) ‘র বিশিষ্ট খলিফা আলহাজ্ব আবদুল খালেক ইন্জিনিয়ারের ৫৫ তম ওফাত বার্ষিকী স্মরণে আয়োজিত, গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ’র সভায় আলহাজ্ব আবদুল খালেক ইঞ্জিনিয়ারকে জাতিয় স্বীকৃতি দেওয়ার দাবি জানিয়ে বলা হয় যে, জাতির জন্য তাঁর অবদান অসামান্য, বরং এরচেয়ে কম অবদান রেখেও অনেকে পুরষ্কৃত হলেও চট্টগ্রামের হবার কারণেই হয়তো তিনি জাতিয় মূল্যায়ন হতে এখনো বন্ঞ্চিত রয়েছেন। চট্টগ্রামের হয়েও তিনি যেমন জাতিয় উন্নয়নে বিশাল খেদমত করে গেছেন, তেমনি তাঁর আজাদী পত্রিকা আমাদের ভাষা আন্দোলন সহ সব জাতিয় প্রয়োজনে আজ ৫৮ বছর ধরে মাইলফলকের মত দিক নির্দেশনা দিয়ে যাচ্ছে।

তিনি চট্টগ্রামকে বিদ্যুতের আলোয় আলোকিতকারী শুধু নন, রেঙ্গুনের বাতিঘর শাহেনশাহে সিরিকোট (র) কে চট্টগ্রামে এনে সমগ্র এশিয়াকেই সুন্নিয়ত ভিত্তিক আধ্যাত্মিক আলোতে উদ্ভাসিত করে গেছেন। ১৯৬০ সালের ৫ সেপ্টেম্বর দৈনিক আজাদী যে কোহিনুর মন্জিল থেকে শাহেনশাহে সিরিকোটের দোয়া নিয়ে যাত্রা করেছিল, এশিয়ার অন্যতম অহংকার চট্টগ্রাম জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়া মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠিাও ১৯৫৪ ‘র জানুয়ারি’তে হয়েছিল একই কোহিনুরের নূরানি কাফেলার প্রচেষ্টায়। ইঞ্জিনিয়ার সাহেব এই জামেয়া -আনজুমানের কোষাধ্যক্ষের দায়িত্ব আজীবন সততা ও দক্ষতার সাথে পালন করে গেছেন।অবশেষে, এই দিনে, এই জামেয়ার কবরস্হানে মসজিদের পাশে তাঁর স্হায়ী ঠিকানা করে নেন। আলহাজ পেয়ার মোহাম্মদ কমিশনারের সভাপতিত্বে,এবং মোছাহেব উদ্দিন বখতিয়ারের পরিচালনায় ষোলশহর আলমগীর খানকাহ্ শরিফে বাদ আসর অনুষ্ঠিত দোয়া ও আলোচনা সভায় বক্তাগন এ কথা বলেন। আলোচনা সভা শেষে, জামেয়া কবরস্হানে ইঞ্জিনিয়ার সাহেবের মাজারে ফুলের চাকা অর্পন করা হয়, এবং জেয়ারাত, মীলাদ ও মুনাজাত করা হয়। এতে প্রধান বক্তা ছিলেন সংগঠনের মহাসচিব শাহজাদ ইবনে দিদার। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন আলহাজ্ব মাহবুবুল হক খাঁন, গাজী মোহাম্মদ লোকমান,ড: মৌ সাইফুল আলম, আলহাজ রমিজ উদ্দিন, হাজী বখতিয়ার সর্দার, ইঞ্জিনিয়ার সাইফুল ইসলাম, মৌ মোজাম্মেল হক,মৌ ক্বারী মুহাম্মদ ইব্রাহিম, কাজী মোয়াজ্জম হোসেন,মোহাম্মদ আজগর, মৌ মোহাম্মদ ফরহাদ প্রমুখ।